দা’মি ও’য়াইন থেকে চি’জ, বা’চ্চা হা’ঙরও থা’কে কি’মের খা’বারের তা’লিকায়!

বিশ্বজুড়ে এক র’হস্যের নাম উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক কিম জং উন। সবশেষ আলোচনায় এসেছিলেন প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে জনসম্মুখে না এসে।

হার্ট অ্যাটাক অথবা করো’নায় মা’রা গেছেন এমন গুজবও ছড়িয়ে পড়ে। সব গুজবকে উড়িয়ে দিয়ে প্রায় ২০ দিন পর জনসম্মুখে আসেন তিনি। তবে এরপর আবারো নি’খোঁজ।

অ’জ্ঞাতবাস কাটিয়ে ফিরলেও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না কিম জং উনের। কখনো প’রমাণু বিতর্ক, কখনো বা একাধিক স্বৈরাচারী সিদ্ধান্ত-ঘুরে ফিরে খবরেই শিরোনামেই থেকে গেছেন কিম জন উন।

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের মা’থা চাড়া দিয়ে উঠেছে ‘মৃ’ত্যুশয্যায় কিম’ জল্পনা। আর এরমধ্যেই আলোচনায় কিম জং উনের ডায়েট।

উত্তর কোরিয়ার একজন সাবেক সরকারি শেফ (রাঁধুনী) কেঞ্জি ফুজিমোতোকে উদ্ধৃত করে কিমের ডায়েট স’ম্পর্কে তথ্য দিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য মিরর। প্রতিবেদন অনুযায়ী, দামি ওয়াইন পানের শখ রয়েছে কিমের। এছাড়াও চিজ খেতে খুবই ভালোবাসেন উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক।

ফুজিমোতোর এক পুরনো সাক্ষাৎকার অনুযায়ী, চ’মক অন্যত্র! বাচ্চা হাঙরের স্যুপ নাকি খুবই পছন্দ কিম জং উনের। এবং প্রায়ই নিজের শেফ-টিমের কাছে স্যুপের আবদারও করে থাকেন কিম।

জাতিসংঘের রিপোর্ট অনুযায়ী, খাদ্য সংকট রয়েছে উত্তর কোরিয়ায়। অ’পুষ্টির শিকার সে দেশের শি’শুরা। এমতাবস্থায় খাদ্যরসিক শাসকের ভোজন-বাজেট পিয়ংইয়ংয়ের কাছে বাড়তি ‘বোঝার’ থেকে কম নয় বলে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত।

প্রসঙ্গত, এটা অজানা নয়, অ’ত্যধিক ধূমপান, স্থূলতা-সহ বেশ কিছু সমস্যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছিলেন কিম জং উন। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে দাবি, এর জেরেই হৃদযন্ত্রে অ’স্ত্রোপচার এবং তারপর থেকেই গু’রুতর অ’সুস্থ ছিলেন কিম জং উন। যদিও কিমের অ’স্ত্রোপচার স’ম্পর্কিত দাবি সত্যি না মিথ্যা, তা নিয়ে কোনো বিবৃতি আসেনি পিয়ংইয়ং থেকে। তবে মা’র্কিন ওষুধ সংস্থা ‘জন হপকিন্স’-এর তরফে দাবি, কিমের যে ধরনের স্থূলতা রয়েছে, তাতে হৃদযন্ত্রে অ’স্ত্রোপচার স্বাভাবিক।

সূত্র- দ্য মিরর, এই সময়।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *