1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan :
  2. alireza.kg2014@gmail.com : Ali Reza Sumon : Ali Reza Sumon
  3. hrbiplob2021@gmail.com : News Editor : News Editor
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:-
জাতীয় স্লোগান হিসেবে ‘জয় বাংলা’ ব্যবহারের নির্দেশঃ হাইকোর্ট কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় বিশ্ব এন্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ পালিত ৬ দিনে মামলা নিষ্পত্তি কিশোরগঞ্জে ইউএইচএন্ডএফপিও ফোরামের পরিচিতি ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনা রোধকল্পে নিসচা’র প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জে জাতীয় নিরাপদ দিবস উপলক্ষে বর্নাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হলেন আবু তাহের নিকলীতে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন কিশোরগঞ্জে জাতীয় স্যানিটেশন মাস শুরু পাগলা মসজিদের এবার মিলল ১৫ বস্তায় ৩ কোটি ৮৯ লাখ ৭০ হাজার ৮৮২ টাকা কিশোরগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি’র দায়ীত্ব থেকে শরীফকে অব্যাহতি

আ’ইপিএলে স’র্বকালের সেরা একাদশে সা’কিব।

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ২৪ মে, ২০২০
  • ২৭০ সংবাদটি দেখা হয়েছে

১২ ব’ছর ধরে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দল কলকাতা নাইট রাইডার্সে খেলেছেন অনেক মহাতারকা। তবে সবাই সমান সাফল্য পাননি।অনেকে তো ভু’লে যেতে চাইবেন নাইট রাইডার্সে খেলার অ’ভিজ্ঞতা। আবার এই জার্সি গায়ে চা’পিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকে’টে তারকা হয়ে ওঠার উদাহ’রণও আছে।

গ’ত এক যুগের সেইসব ক্রিকেটারদের ভিড় থেকে এবার তৈরি করা হয়েছে সর্বকালের সেরা নাইট রাইডার্স একাদশ। ১৩ জনের দলে স্বাভাবিকভাবেই সুযোগ হয়েছে বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিবগৌতম গম্ভীর (অধিনায়ক) : ওপেনিংয়ে ম্যাককালামের সঙ্গী গৌতম গম্ভীর। এই দলের অধিনায়কও তিনি। দুই বার গম্ভীরের নেতৃত্বে আইপিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কলকাতা।

ক’লকাতার হয়ে আইপিএলে সবচেয়ে বেশি রান গম্ভীরেরই আছে। ৩১.৬১ গড়ে তিনি করেছেন ৩০৬৫ রান। স্ট্রাইক রেট ১২৪.২৮। কলকাতায় তিনি টানা ৭ মৌসুম খেলেছেন।রবিন উত্থাপা : তিন নম্বরে আছেন রবিন উথাপ্পা। ম্যাককালাম না চাইলে উইকেট’কিপিংয়ের দায়িত্বও পালন করতে পারেন তিনি। নাইট রাইডার্সের রবিন হয়ে ৩০.৪৮ গড়ে ২৪৩৯ রান করেছেন।

৪ মৌ’সুম ধরে তিনি ধারাবাহিকতা দেখিয়েছেন। ২০১৪ সালের আইপিএল ফাইনালে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছিলেন মণীষ।সাকিব আল হাসান : ৬ নম্বরে নামবেন বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ব্যাট হাতে তিনি যেমন নির্ভরযোগ্য, তেমনি বল হাতে সমানতা’লে সার্ভিস দেন।বোলিংয়ে কিপ্টেমি সাকিবের স্বভাব। তার উপস্থিতি দলে ভা’রসাম্য বাড়িয়ে দিয়েছে। ৭ বছর কলকাতা নাইট রাইডার্সে ছিলেন তিনি। কলকাতার দুই বার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার নেপথ্যে ব্যাটে-বলে অবদান রাখেন।

দু’ই বছর আগে নাইটদের সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। নি’ষিদ্ধ হওয়ার আগে খেলেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদে।সুনিল নারিন : সাতে আরও এক ক্যারিবিয়ান অল-রাউন্ডার। সুনিল নারিনের পরিচিতি অবশ্য র’হস্যময় স্পিনার হিসেবে। এই অফস্পিনারের বল বুঝতে ব্যাটসম্যানদের ঘাম ছুটে যায়।পাশাপাশি প্রয়োজনে তিনি ওপেনার হিসেবে নেমেও বড় শট নিতে পারেন। বেগুনি জার্সিতে ১২২ উইকেট নেওয়া নারিন হলেন কলকাতার তুরুপের তাস। তার ইকনমি রেট মাত্র ৬.৬৭!সেরা এগারজনের বাইরে রিজার্ভ বেঞ্চে রাখা হয়েছে আরও দুজনকে।

এ’দের একজন ব্যাটসম্যান সূর্যকুমা’র যাদব। যাকে এক সময় ফিনিশার হিসেবে ব্যবহার করত নাইট রাইডার্স।বিদেশি হিসেবে রিজার্ভ বেঞ্চের অ’পর নামটি বেশ চ’মকে দেওয়ার মতো। ‘রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেস’ খ্যাত শোয়েব আখতার।২০০৮ সালের আইপিএলে গতির ঝড় তুলেছিলেন। ওই এক আসর খেলেই সর্বকালের সেরা দলে সুযোগ পেয়ে গেছেন।

Facebook Comments Box

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

All rights reserved © 2021 Newsmonitor24.com
Theme Customized BY IT Rony