আজ, এ’ক্ষুনি তথাকথিত ল’কডাউন তু’লে নেওয়া উচিত!।

বাং’লাদেশে আজ, এক্ষুনি তথাকথিত লকডাউন তুলে নেওয়া উচিত। এই সাধারণ ছুটি/লকডাউন দিয়ে কোনো লাভ হয়েছে? একেবারেই হয়নি। ফাঁক দিয়ে তাহ’লে মানুষের জীবিকা ধ্বংস হয়ে গেছে। যাদের বাসায় বসে বসে খাবার সাম’র্থ্য আছে তারা নিজেরাই আরও এক বছর লকডাউনে থাকুক আর ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিক। একদিকে মানুষের আয় নেই,অন্যদিকে মানুষের পকেট কা’টা চলছে।

ত’থাকথিত লকডাউনকে ব্যবহার করে চলতি মাসের বিদ্যুৎ-পানির বিল দ্বিগুণ এসেছে। মানুষ কোথা থেকে দেবে এই টাকা? যদি স্বাভাবিক নিয়মে চলতো তাহলে একসাথে এতো মানুষের ভিড় করার প্রয়োজন হতো না। এতে সংক্রমণের ঝুঁ’কিও কম হতো। হয়তো ফেরি সার্ভিস পুরোপুরি বন্ধ করুন, নয়তো সবকিছু চালু করুন।

১০টা প’রিরহনের জায়গায় দুইটা চললে মানুষ তো উপচে পড়বেই। সাধারণ মানুষকে দোষারোপ করে লাভ নেই। কেউ শখ করে মহাসড়কেগাবতলি থেকে পাটুরিয়া ঘাটে আগে যেতে খরচ হতো একশ থেকে দেড়শ টাকা। লকডাউনের সময় খরচ হচ্ছে পাঁচশ থেকে সাতশ টাকা। তারপরেও আপনাদের কি মনে হয় যে মানুষ শখ করে যাচ্ছে?

ক’তদিন লকডাউন চললে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে? বলতে পারেন?প্রথমে বলা হয়েছিল, এপ্রিল মাসে হবে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ। এরপর বলা হলো, মে মাসে বেশি হবে। এখন বলা হচ্ছে, জুন মাসে বেশি হবে। জুন মাসের শেষে গিয়ে হয়তো বলবে জুলাই মাসে! তাহলে কতদিন চলবে এই তথাকথিত লকডাউন? বিষয়টি আপনারাই ভেবে দেখু’ন(?) কথা গুলো বলছিলেন জৈনিক এক ব্যক্তি।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *