আ’মি তো’মাকে পা’ইনি লিখে ৮ম শ্রেণির ছাত্রের আ’ত্ম’হ’ত্যা।

ঝি’নাইদহের কা’লীগঞ্জ উপজে’লায় চিরকুট লিখে ৮ম শ্রেণির ছাত্র আ’ত্ম’হ’ত্যা করেছে।

নিহ’তের নাম মো. আবদুল্লাহ।

মৃ’ত্যু’র আ’গে ছাত্র মো. আবদুল্লাহ চিরকুটে যা লিখে যায় তা হুবহু তুলে ধরা হলো– ‘আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি।

আ’মি জা’নি তুমি সাদ, সিজানসহ আরও অনেক অনেক ছেলের সঙ্গে কথা বলো।

কি’ন্তু আ’মি কিছু মনে করি না; কারণ
আমি তোমাকে ভালোবাসি।

তু’মি যখন যেটি চাও আমি তাই দিয়েছি।

তো’মার সাথে যারা দেহ দিয়ে প্রে’ম করেছে; তাদের সাথে তুমি কথা বলো।

আ’র আ’মি মন দিয়ে প্রে’ম করেছি, তাই আমি তোমাকে পাইনি।

আ’র তোমার জন্য আমি অনেক কাঁদি; পরশু দিনও অনেক কেঁদেছি।

না’ছিম ব’লে ওর চেয়ে অনেক ভালো মেয়ে পাবি; আমি বললাম না– আমি তোমাকে ছাড়া আমি মো’রে যাব।

ই’তি তোমার ভালোবাসা।

’শু’ক্রবার বি’কালে উপজে’লার গোমরাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহ’ত মোঃ আ’বদুল্লাহ ভাটাডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র ও একই এলাকার বাসিন্দা।

জা’না গেছে, শু’ক্রবার বিকালে স্কুল মাঠ থেকে বাড়ি ফিরে আর খেলার মাঠে যায়নি আবদুল্লাহ।

স’হপাঠীরা তাকে ডা’কতে এসেছিল।

তা’কে না পেয়ে পড়ার ঘরে ছুটে যায় সহপাঠীরা।

কি’ছুক্ষণ ডা’কাডাকির পর কোনো সাড়া না পেয়ে ঘরের জানালা দিয়ে দেখতে পায় আবদুল্লাহ ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ঝু’লছে।

এ’র পর তাদের চিৎ’কারে প্রতিবেশীরা এসে দরজা ভে’ঙে আবদুল্লাহকে নামায়।

এ’র প’র কালীগঞ্জ উপজে’লার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

এ’দিকে এ’কমাত্র স’ন্তানকে হা’রিয়ে বাকরু’দ্ধ মা।

ঘ’টনার দিন তিনি ছিলেন আবদুল্লাহর নানাবাড়িতে।

আ’র বাবা আবদুল কুদ্দুস মালয়েশিয়া প্রবাসী।

ছে’লের মৃ’ত্যুর সংবাদ শুনে তিনিও রোববার সকালে দেশে এসে ছেলের জা’না’জায় শরিক হন।

এ’র পর বাড়ির পাশে তাকে দা’ফ’ন করা হয়।

স্ব’জনরা জা’নান, আবদুল্লাহর মৃ’ত্যু’র কারণ জানতে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ ময়’না’ত’দ’ন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল ম’র্গে পাঠায়।

সে’ই রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত অধরাই থেকে যাচ্ছে তার মৃ’ত্যুর র’হস্য।

ত’বে আ’বদুল্লাহর মৃ’ত্যু’র র’হস্য ঘনীভূত হচ্ছে তার নিজ হাতে লিখে যাওয়া চিরকুটকে ঘিরে।

চি’রকুটের ভাষা অনুযায়ী, এক মেয়ের সঙ্গে প্রে’মের সম্পর্কের কারণেই আবদুল্লাহ আ’ত্ম’হ’ত্যা করেছে।

অ’থবা প্রে’ম সম্পর্কের জের ধ’রে মেয়ে পক্ষের লোকজন তাকে মা’রধ’র করেছে এমন কথাও লোকমুখে শোনা যাচ্ছে।

কা’লীগঞ্জ থা’নার এসআই কাজী আবুল খায়ের জানান, থানায় এ ব্যাপারে একটি অপমৃ’ত্যুর মা’মলা হয়েছে।

ম’য়’নাত’দন্তের রি’পোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত ত’দ’ন্তের স্বার্থে এ ব্যাপারে কিছুই বলা যাচ্ছে না।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *