এ’ইমাত্র ঈ’দের ছু’টিতে যারা গ্রা’মের বা’ড়িতে ফি’রতে চান তা’দের জন্য বি’রাট সু’খবর!…

প’বিত্র ঈ’দুল ফি’তরের ছু’টির কারণে অনেকেই গ্রা’মের বাড়ি ফি’রছিলেন।

তবে তাদের ঢা’কা ছা’ড়তে নানা পু’লিশি বা’ধার স’ম্মুখীন হতে হয়েছে।

ফেরি চলাচল ব’ন্ধ করায় মা’ঝপথ থেকে ফিরে আসতে হয়েছে অনেককে।

তাদের জন্য সু’খবর। ঈদের ছুটিতে যারা গ্রামের বা’ড়িতে ফিরতে চান তারা নি’জস্ব প’রিবহন ব্য’বস্থায় বাড়ি ফিরতে পারবেন।

বৃ’হস্পতিবার স’রকারের উচ্চ’মহল থেকে পু’লিশকে এ ধরনের একটি মৌ’খিক নি’র্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নি’র্দেশনায় বলা হয়েছে, ছুটিতে জরুরি কাজের জন্য কেউ যদি গ্রা’মের বাড়ি ফিরতে চায় তাহলে পু’লিশ যেন তাদের অনুমতি দেয়।

তাদের যেন খুব বেশি হয়’রানি বা প্র’শ্নোত্তরের শিকার না হতে হয়। তবে গ’ণপরিবহন চলবে না।ঢাকা মে’ট্রোপলিটন পু’লিশের (ডিএমপি) দু’ইজন অ’তিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ’কজন বলেন, পু’লিশ স’দরদফতরের এ ধরনের এ’কটি বার্তা পাওয়ার পর আম’রা গা’বতলী থেকে চেকপোস্ট তুলে দিয়েছি।

তবে এর আগে গত ম’ঙ্গলবার রা’জধানীর রা’জারবাগে বাং’লাদেশ পু’লিশ অ’ডিটোরিয়ামে এক সংবাদ স’ম্মেলনে পু’লিশ ম’হাপরিদর্শক (আইজিপি)ড. বে’নজীর আহমেদ ঢাকা থেকে রওনা হয়ে ফে’রিঘাটে আ’ট’কেপড়া ঘ’রমুখী মা’নুষদের স্ব স্ব অ’বস্থানে ফিরে আ’সার আ’হ্বান জানিয়েছিলন।তিনি বলেছিলেন, ফেরিঘাটে আ’ট’কেপড়াদের অ’নুরোধ, দ:য়া করে যেখানে ছি’লেন সেখানে ফিরে আসুন।এরপরও থেমে থাকেনি মানুষের ঈদযাত্রা।

আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে সড়কে ঘরমুখো মানুষের ঢল নামে।

ঢাকা, গা’জীপুরসহ আশপাশের জে’লাগুলো থেকে বাড়িতে ফিরতে শুরু করে মানুষ।

ম’ঙ্গলবার (১৯ মে) স’কালে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সে’তু ম’হাসড়কের তা’রটিয়া ও আশেকপুর বাইপাস এ’লাকায় দেখা গেছে ঘ’রমুখো মানুষের ভেঙে ভেঙে বাড়ি যাওয়ার প্র’তিযোগিতা।

বাড়তি ভা’ড়া দিয়ে লে’গুনা, সিএনজি ও ব্যা’টারিচালিত অ’টোরিকশায় চড়ে তারা ছুটছেন নিজ নি’জ গ’ন্তব্যে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *