1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan :
  2. alireza.kg2014@gmail.com : Ali Reza Sumon : Ali Reza Sumon
  3. hrbiplob2021@gmail.com : News Editor : News Editor
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:-
জাতীয় স্লোগান হিসেবে ‘জয় বাংলা’ ব্যবহারের নির্দেশঃ হাইকোর্ট পদ্মা সেতু উদ্বোধন আনন্দের জুয়ার কিশোরগঞ্জে তাড়াইলে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আনন্দ মিছিলের পরিবর্তে ত্রাণ বিতরণ কিশোরগঞ্জে বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকার আগে থেকেই প্রস্তুত- মো.খলিলুর রহমান কিশোরগঞ্জে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন হাওরের উন্নয়ন নিয়ে ঈর্ষান্বিত হইয়েন না- এমপি তৌফিক যোগ্য হাতেই সদর আওয়ামীলীগ কিশোরগঞ্জে অভিনব কায়দায় ব্যাংকে টাকা চুরি করতে গিয়ে এক ব্যক্তি আটক নিয়ন্ত্রণহীন গাড়ি ও জনসচেতনতার অভাবেই বেশিরভাগ সড়ক দূর্ঘটনা- পুলিশ সুপার কিশোরগঞ্জ নিকলীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস_২০২২ উদযাপন

এই সময়ে ক’রোনা থেকে মুক্তি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ১৩ জুন, ২০২০
  • ১৬৮ সংবাদটি দেখা হয়েছে

কো’ভিড ১৯ ,যা ক’রোনা ভা’ইরাস নামেই পরিচিত এই ভাইরাসের টিকা পেতে কাজ করছে বিশেষজ্ঞরা। একই সাথে অপেক্ষা করছে বিশ্বের ৭শ কোটি মানুষ। কিন্তু কবে ক’রোনার টিকা পাওয়া যাবে তা নিশ্চিত নয়।

টি’কা নিয়ে কা’জ করছেন এমন বিশেষজ্ঞদের দাবি, আগামী বছরের আগে টিকা পাওয়া কঠিন হবে।তবে পরাশক্তি দে’শগুলোর মধ্যে কে আগে বাজারে টিকা নিয়ে আসবে তা নিয়ে রীতিমতো মর্যাদার লড়াই শুরু হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী ক’রোনাভা’ইরাসের টিকা তৈরির সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে মঙ্গলবার একটি প্রতিবেদন ছেপেছে সিনেট। তাতে বলা হয়েছে, টি’কা আ’বিষ্কার, অনুমোদন, উৎপাদন এবং বিশ্বব্যাপী বাজারজাতকরণে এক থেকে ১০ বছর পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

তবে আ’শার খবরও আছে। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কার নিয়ে যে তোড়জোড় চ’লছে তা স্মরণকালের ইতিহাসে অন্য কোনো রোগের টিকা আবিষ্কারের ক্ষেত্রে দেখা যায়নি।

আ’লজাজিরার প্র’তিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার মাত্র তিন মাসের মাথায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম রোগটির টিকার প’রীক্ষামূলক প্র’য়োগ শুরু হয়।এত কম সময়ে টিকা আবিষ্কার করে তা পরীক্ষামূলক প্রয়োগের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার সে ঘটনায় অনেকে বিস্মিত হয়েছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সি’য়াটলে ন্যা’শনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের অর্থায়নে ওই টিকা কর্মসূচির কার্যক্রম শুরু হয়েছিল।তি’ন মা’সের কম সময়ের মধ্যে করোনার টিকা তৈরি করে এপ্রিলে তার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করে যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

ল’ন্ডনের ই’ম্পেরিয়াল কলেজের গবেষকরা বলেছেন, কম খরচে আগামী বছরের শুরুতেই তারা ক’রোনার টি’কা বাজারে আনতে পারবেন।চীনে তৈরি কমপক্ষে পাঁচটি টিকার প’রীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে মানুষের শরীরে।

দে’শটির প্রে’সিডেন্ট শি জিনপিং বলেছেন, চীনের তৈরি টিকা সফলতা পেলে তা সবার জন্য উন্মুক্ত করে দে’ওয়া হবে।তবে কেউই নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না ঠিক কবে করোনার টিকা পেতে শুরু করবে মানুষ।

যুক্তরাষ্ট্রের শী’র্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ এবং দেশটির করোনা টাস্ক ফোর্সের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ডা. অ্যা’ন্থনি ফু’চি সিএনএনকে বলেছেন, আগামী বছরের প্রথম ভাগে টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে তিনি আশাবাদী।

তবে টি’কা উ’দ্ভাবনে চলা গবেষণাগুলোর মধ্যে কোনটির কার্যক্রমের ভিত্তিতে ডা.ফুচি ওই কথা বলেছেন তা তিনি স্প’ষ্ট করেননি।ওষুধ কোম্পানি ম’ডার্নাকে টিকা তৈরি কার্যক্রমে সব ধরনের সহায়তা করে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

কো’ম্পানিটির টি’কার কা’র্যকারিতা প্রমাণিত হলে সঙ্গে সঙ্গে তা বাজারে আনতে প্রস্তুত দেশটি।ডা. ফু’চি বলেছেন, ২০২১ সালের শুরুতেই কয়েক কোটি ডোজ টিকা হাতে পাওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী।

তবে অনেক চি’কিৎসক আ’গামী বছরের প্রথম দিকে টিকা হাতে পাওয়ার লক্ষ্যমাত্রাকে ‘অত্যন্ত উচ্চাভিলাষী লক্ষ্য বলে উ’ল্লেখ করেছেন।এর কারণ হলো একটি টি’কা মানুষের শরীরে ব্যবহার উপযোগী কিনা তা জানতে অনেকগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন হয়।

প্র’থমে কোনো প্রা’ণীর ওপর টিকার প্রাথমিক পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়। সেখানে সফলতা মিললে তিন ধাপে মানুষের শরীরে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়।এটি এ’তটাই দীর্ঘস্থায়ী প্রক্রিয়া যে একটি টিকা হাতে পেতে ১০ বছর পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

দ্রু’ত টি’কা পেতে চাইলে তার ফল ভালো হওয়ার থেকে খারাপ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। ২০১৭ সালে একটি ভ’য়ানক অ’ভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছিল বিশ্ব।ওই বছর দ্রুত ডেঙ্গুর টিকা ব্যবহার করতে গিয়ে ফিলিপাইনে ১০ শিশুর মৃত্যু হয়েছিল।

এরপর টি’কাটির প’রীক্ষামূলক কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। দেশটির সরকার ১৪ কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত করে বলেছিল, তা’ড়াহুড়ো করে টিকার কার্যকারিতা পরীক্ষার ফলেই এমনটা ঘটেছে।১৯৭৬ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কবার্তা উপেক্ষা করে দ্রুততার ভি’ত্তিতে সোয়াইন ফ্লুর টিকার প্রয়োগ শুরু করেছিল যুক্তরাষ্ট্র।

চা’র কোটি ৫০ লা’খ মানুষকে টিকা দেওয়ার পর দেখা যায় যে, ৪৫০ জনের শরীরে বিরল রোগ দেখা দিয়েছে। তার মধ্যে ৩০ জন মারা যান।তবে সা’র্বিকভাবে বলা যায়, টি’কার মাধ্যমে অনেক রোগ এবং অপরিণত মৃত্যু রোধ করা সম্ভব।

বি’শ্ব স্বা’স্থ্য সংস্থা বলেছে, প্রতি বছর ২০ থেকে ৩০ লাখ মা’নুষের জীবন বাঁ’চায় টিকা।নিরাপদে কীভাবে টিকা তৈরির গতি বাড়ানো যায় তার উপায় খোঁজার চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা।

এই উ’পায় খোঁ’জার প্রক্রিয়া চলমান থাকার মধ্যেই বিশ্বজুড়ে অনেকগুলো গবেষণা দল ক’রোনাভা’ইরাসের টিকা তৈরি বা পরীক্ষার কাজ করছে।বি’শ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, জুনের শুরুর দিকেও ১২০টির বেশি দল করোনার টিকা নিয়ে কাজ করছিল।

৪ জুন পর্যন্ত ১০টি দ’ল মা’নুষের শরীরে টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেছে। এদের মধ্যে পাঁ’চটি চীনে, চা’রটি যুক্তরাষ্ট্রে এবং একটি যুক্তরাজ্যে। পরাশক্তি এই দেশগুলোর নেতারা একজন আরেকজনের আগে করোনার টিকা পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন।

Facebook Comments Box

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

All rights reserved © 2021 Newsmonitor24.com
Theme Customized BY IT Rony