1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan :
  2. alireza.kg2014@gmail.com : Ali Reza Sumon : Ali Reza Sumon
  3. hrbiplob2021@gmail.com : News Editor : News Editor
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:-
জাতীয় স্লোগান হিসেবে ‘জয় বাংলা’ ব্যবহারের নির্দেশঃ হাইকোর্ট কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় বিশ্ব এন্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ পালিত ৬ দিনে মামলা নিষ্পত্তি কিশোরগঞ্জে ইউএইচএন্ডএফপিও ফোরামের পরিচিতি ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনা রোধকল্পে নিসচা’র প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জে জাতীয় নিরাপদ দিবস উপলক্ষে বর্নাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হলেন আবু তাহের নিকলীতে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন কিশোরগঞ্জে জাতীয় স্যানিটেশন মাস শুরু পাগলা মসজিদের এবার মিলল ১৫ বস্তায় ৩ কোটি ৮৯ লাখ ৭০ হাজার ৮৮২ টাকা কিশোরগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি’র দায়ীত্ব থেকে শরীফকে অব্যাহতি

এ’কই পরিবারের ৪৬ জন প’বিত্র কু’রআনে হাফেজ।

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০
  • ১৫৩ সংবাদটি দেখা হয়েছে

প’টুয়াখালীর বা’উফলের বাঁশবাড়িয়া গ্রামের শাহ’জাহান হাওলাদার (৬৮)। সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত তিনি।বাউফল স’রকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছেন। অথচ তিনি নিজ এলাকায় প্রতিষ্ঠা করেছেন ছয়টি হাফিজি মাদরাসা।পবিত্র কোরআনের হাফেজ বানিয়েছেন নিজের ছে’লেমে’য়েসহ পরিবারের অন্যদের।

তা’দের বি’য়েও দি’য়েছেন হাফেজদের সঙ্গে। সব মিলিয়ে পরিবারের এখন ৪৬ জন হাফেজ। বাড়ির ছোটরাও একই পথে হাঁটছেন।জানতে চাইলে শাহ’জাহান হাওলাদার বলেন, বাবা (নুর মোহাম্ম’দ হাওলাদার) ছিলেন ধ’র্মপ্রা’ণ মু’সলমান। তিনি হ’জ করেছেন।

হ’জ পা’লনরত অ’বস্থায় ই’ন্তেকাল করেছেন তিনি। বাবা হাফেজদের খুব ভালোবাসতেন।জানতে চাইলে শাহ’জাহান হাওলাদার বলেন, বাবা (নুর মোহাম্ম’দ হাওলাদার) ছিলেন ধ’র্মপ্রা’ণ মু’সলমান। তিনি হ’জ করেছেন। হ’জ পালনরত অবস্থায় ই’ন্তেকাল করেছেন তিনি। বাবা হাফেজদের খুব ভালোবাসতেন।

এ কা’রণেই তি’নি লক্ষ্য স্থির করেন, পরিবারের সবাইকে হাফেজি পড়াবেন। সেই সূত্র ধরে আত্মীয়তাও করেছেন হাফেজদের সঙ্গে। সে লক্ষে তিনি নিজের ছয় ছে’লে ও চার মে’য়েকে হাফিজি পড়ান। পরে ছে’লে-মে’য়েদের বিয়েও দিয়েছেন হাফেজদের সঙ্গে।

এ’রপর তা’র ই’চ্ছা অনুযায়ী, তার ছে’লে-মে’য়েরাও তাদের স’ন্তানদের হাফিজি পড়িয়েছেন ও পড়াচ্ছেন।শাহ’জাহান হাওলাদারের মেজ ছে’লে হাফেজ মা’ওলানা নুর হোসেন বলেন, আমিসহ আমা’র বাবার ছয় ছে’লে ও চার মে’য়ের মধ্যে এক ছে’লে ও এক মে’য়ে সৌদি আরব থাকেন।

বা’কি স’বাই ব্য’বসার পাশাপাশি হাফিজি মাদরাসায় শিক্ষকতা ও ম’সজিদের খতিবের দায়িত্ব পালন করছি। ছয় ছে’লের ২৮ স’ন্তান এবং চার মে’য়ের ২৩ স’ন্তান রয়েছে। এরই মধ্যে তাদের ২৭ জন পবিত্র কোরআনে হাফেজ হয়েছে। বাকিরা হাফিজি পড়ছে।শাহ’জাহান হাওলাদার জানান, এলাকায় ছয়টি মাদরাসা স্থাপন করেছি।

এ’র ম’ধ্যে তিনটি ছে’লেদের ও তিনটি মে’য়েদের। এছাড়া বরিশালের আলেকান্দা এলাকায় মে’য়েদের জন্য নুর জাহান বেগম হাফিজি মাদরাসা ও কাম’রাঙ্গীরচর ঢাকায় দারুল আখরাম নুরানী হফিজি মাদরাসাও স্থাপন করেছেন তিনি।

ছে’লেদের মা’দরাসা পরিচালনা করেন তার ছে’লেরা ও মে’য়েদের মাদরাসা পরিচালনা করেন তার মে’য়ে ও ছে’লের বৌরা। আমা’র যা ছিল তার সব কিছু মাদরাসা স্থাপন ও বর্তমান খরচ পরিচালনায় খরচ করি। তারপরও মাদরাসার সব খরচ পোশাতে পারি না। এজন্য স’রকার যদি এতিম ছে’লে-মে’য়েদের জন্য সহায়তা করত তাহলে ভালো হতো।

১২ নং বা’উফল স’দর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মুহা. জসিম উদ্দিন খান বলেন, শাহ’জাহান হাওলাদারের পরিবারের সবাই ধার্মিক ও বিনয়ী। পরিবারের সবাইকে হাফেজ বানিয়ে এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি।

Facebook Comments Box

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

All rights reserved © 2021 Newsmonitor24.com
Theme Customized BY IT Rony