করোনা রোগীর দাওয়াত খেয়ে দেড় হাজার মানুষ কোয়ারেন্টাইনে

দুবাই ফেরত এক ব্যক্তি তার মায়ের মৃত্যুর পর একটি ভোজের আয়োজন করেন। সেখানে অংশ নেন এলাকার দেড় হাজার মানুষ। পরে জানা যায়, ওই ব্যক্তিসহ তার পরিবারের ১২ সদস্য নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত। তাই সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে গোটা এলাকাই লকডাউন করে দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

সম্প্রতি এ ঘটনাটি ঘটে ভারতের মধ্যপ্রদেশের মরেনা জেলায়। ওই এলাকায় যাতে কেউ প্রবেশ বা বের হতে না পারে সেজন্য কড়া পাহারারও ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফলে ওই এলাকার দেড় হাজার বাসিন্দা এক প্রকার কোয়ারেন্টাইনেই আছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানান, গত ১৭ মার্চ দুবাই থেকে দেশে ফেরেন সুরেশ নামের ওই ব্যক্তি। তিনি সেখানে একটি বিলাশবহুল হোটেলে কাজ করতেন তিনি। দেশে ফেরার পর গত ২০ মার্চ তিনি তার মায়ের মৃত্যু উপলক্ষে একটি বিশেষ ভোজ আয়োজন করেন। সেই দাওয়াত খেতে আসেন এলাকার প্রায় দেড় হাজার মানুষ।

গত ২৫ মার্চ তার শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে তিনি স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে নমুনা পরীক্ষা করে তার শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়। পরিবারের অন্য সদস্যরাও সংক্রমিত হতে পারে সন্দেহে তার স্ত্রীসহ ১০ জন আত্মীয়-স্বজনের নমুনা পরীক্ষা করা হয় এবং তাদের প্রত্যেকের শরীরেও ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়।

খবর পেয়ে স্থানীয় প্রশাসন গোটা এলাকা লকডাউন করে দেয়। পাশাপাশি ওই এলাকায় কড়া পাহারা বসানো হয়।

ভারতে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৮২ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছেন ৮৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২২৯ জন।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *