কলকাতা থেকে ফিরলেন ৮১ বাংলাদেশি

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ভারত সরকারের ঘোষিত ‘লকডাউনে’ কলকাতাসহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় আটকেপড়া ৮১ বাংলাদেশি শুক্রবার বেনাপোল ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরেছেন। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে তারা ভারতের পেট্রাপোলের আনুষ্ঠানিকতা সেরে দেশে আসেন বলে জানাগেছে।

এদিকে দু’দেশের দূতাবাস ও সংশ্লিস্ট মন্ত্রণালয়ের মধ্যে আলাপ-আলোচনার পর তাদের ‘ঘরবন্দি’ দশা থেকে বের হয়ে বাংলাদেশে আসার অনুমতি দেয় ভারত সরকার। আরো অনেকেই ভারতে আটকা রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন সংশ্লিস্টরা।

সীমান্ত বর্ডার বেনাপোলে দায়িত্বরত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. হাবিবুর রহমান জানান, বিশেষ ব্যবস্থায় এদিন দেশে ফেরা যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ক্ষেত্রে অধিক কড়াকড়ি ও সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে। তবে তাদের কারও দেহে উচ্চতাপমাত্রা বা করোনাভাইরাসের অন্য কোন লক্ষণ পাওয়া যায়নি।

ভারত থেকে আসা যাত্রীদের প্রত্যেককে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে। স্বাস্থ্য পরীক্ষাকালে তাদের হাতে বিশেষ চিহ্নিতকরণ লাল সিল দেওয়া হয়েছে। বেনাপোল ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ জানায়, ভারত থেকে আসা বাংলাদেশিদের বাড়ি যশোর, মাগুরা, নড়াইল, খুলনা, ঢাকা, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, বরিশাল, কুষ্টিয়া, গোপালগঞ্জ, শরিয়তপুর, মাদারিপুর, বাগেরহাট, পিরোজপুর, মুন্সিগঞ্জ, বগুড়াসহ দেশের বিভিন্ন জেলায়।

তাদের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে প্রত্যেকের পুর্ণাঙ্গ ঠিকানা ও মোবাইলফোন নম্বর রাখা হয়েছে। স্ব স্ব জেলায় সেগুলো পাঠিয়ে দেওয়া হবে। মোদি সরকার ভারতে ‘জনতার কারফিউ’ ডাক দিলে গত ১৩ মার্চ থেকে ভারতে প্রবেশ নিষিদ্ধ হয় বাংলাদেশিদের।

এরপর ২৬ মার্চ থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে উভয় দেশ থেকে বন্ধ হয়ে যায় যাত্রী পারাপার। এতে ওপারে আটকে থাকা বাংলাদেশিরা চরম দুর্ভোগে পড়েন। অবশেষে তারা মুক্ত হয়ে দেশে ফিরেছেন।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *