কিশোরগঞ্জ কারাগার করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিমুক্ত তবে….?

কিশোরগঞ্জে ২ হাজার কারাবন্দী ধারন ক্ষমতা সম্পূর্ণ জেলার নতুন কারাগার ২০১৯ সালে উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বর্তমানে ১৪৯৬ জন বন্দিকে রাখা হয় নতুন এই কারাগারে।
ধারন ক্ষমতার থেকে বন্দী কম থাকার কারণে যেকোনো ভাইরাসেরই ঝুঁকি অনেকাংশেই কম তবে ঝুঁকিতে পড়তে খুব একটা সময় লাগবে না যদি সাক্ষাৎ কক্ষের সামনের লোক জনকে কন্ট্রোল না করা যায়।

শনিবার (২১ মার্চ)দুপুর ২.১৫ সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,সাক্ষাৎ কক্ষে একজন বন্দী নিয়ে আসা হচ্ছে এবং শুধু অপেক্ষমান সেই বন্দীর আত্মীয়-স্বজনকে সাক্ষাৎ কক্ষের ভিতরে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে। সাক্ষাৎ কক্ষের ভিতরে যদিও গণহারে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞ দিয়েছেন কারা কর্তৃপক্ষ, কিন্তু সাক্ষাৎ কক্ষের গেইটে ছিল না পা ফেল বার চুল পরিমাণ ঠাঁই।

সাক্ষাৎ কক্ষের সামনে মানুষের ভিড়

কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে বন্দীদের সাথে দেখা করতে আসা জসিম নামের একব্যক্তি বলেন, যদি প্রধান ফটকের ভিতরে একজন করে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হত তাহলে করোনা ভাইরাসের কোনো ঝুঁকি এখানে পড়বে বলে মনে হয় না।
সাক্ষাতকারী আরেক ব্যক্তি বলেন , সাক্ষাৎ কক্ষের সামনে যদি এইভাবে ভিড় করেন তাহলে এটা হবে সবার জন্যই ক্ষতিকর।

জেলসুপার বজলুর রশীদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কারাগারে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যতেষ্ট সচেতনতা অবলম্ভন করেছি। তিনি আরো বলেন, বিদেশ ফেরত কোনো বন্দীকে আমরা রিসিভ করছি না।

বর্তমানে নভেল করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিতে সারা বিশ্ব। বাংলাদেশে স্কুল, মাদ্রাসা, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ইতিমধ্যে বন্ধ ঘোষনা করে দিয়েছে। করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে, আর আক্রান্ত হয়েছে ২৪ জন এবং হোম কোয়ারেন্টিনেও রাখা হয়েছে সন্দেহভাজন ও বিদেশ ফেরত ব্যক্তিকে।
কিশোরগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মুজিবুর রহমান জানান, কিশোরগঞ্জের ১৩ উপজেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে ৩০৫ জন ব্যক্তিকে।

বিদেশ ফেরত অনেকে আইন অমান্য করে ঘুরে বেড়াচ্ছে হাট-বাজারে। এরই প্রেক্ষীতে জেলা কারাগারে আরও সতর্কতা অবলম্ভন করা প্রয়োজন।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *