কিশোরগঞ্জ সদরে ছাদ থেকে পরে কিশোরের মৃত্যু

কিশোরগঞ্জ সদরে একটি নির্মাণাধীন চারতলা ভবনের ছাদ থেকে রহস্যজনক ভাবে নিচে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হওয়া রনি মিয়া (১৬) নামে এক কিশোর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর পৌনে তিনটার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গতকাল শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে জেলা শহরের বত্রিশ পৌর মহিলা কলেজ সংলগ্ন একটি নির্মাণাধীন চারতলা ভবনের ছাদ থেকে নিচে পড়ে গিয়ে সে গুরুতর আহত হয়। মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ নিহত রনির তিন বন্ধুকে আটক করেছে।

নিহত রনি মিয়া কিশোরগঞ্জ শহরের পশ্চিম তারাপাশা এলাকার বাদল মিয়ার ছেলে। সে শহরের পৌর মার্কেটের একটি কাপড়ের দোকানের কর্মচারী ছিল। পরিবার জানিয়েছে, শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে বাড়ি থেকে রনিকে তার চার বন্ধু ডেকে নিয়ে যায়। সন্ধ্যার পর তারা ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে রনির আহত হওয়ার খবর পান। তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে মারা হয়েছে বলে তারা দাবি করছেন।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোঃ আবুবকর সিদ্দিক জানিয়েছেন, গতকাল শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের তিন বন্ধুকে থানায় আনা হয়েছে।

আজ শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রনির মরদেহ কিশোরগঞ্জ শহরের বাসায় নিয়ে আসার পর স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তাদের কান্না আর আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *