কুড়িগ্রামে সদ্য প্রত্যাহার করা ডিসি সুলতানা পারভিনের শাস্তির দাবিতে কিশোরগঞ্জে প্রতিবাদ সভা

অনলাইন পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন-এর কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি আরিফুল ইসলামের উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং ওই ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবিতে কিশোরগঞ্জে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে সাংবাদিকরা। আজ সোমবার (১৬ মার্চ) বেলা ১১ টার সময় শহরের ঈশাখাঁ রোডে এ মানববন্ধন হয়।

প্রতিবাদ সমাবেশে জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিক ছাড়াও রাজনীতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা যোগ দিয়ে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

কিশোরগঞ্জের সম্মিলিত সাংবাদিক সমাজের আয়োজনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ ও মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এনায়েত করিম অমি, ব্যবসায়ী নেতা দেলোয়ার হোসেন, কিশোরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি একে নাছিম খান, কিশোরগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক বিজয় রায় খোকা, শফিক আদনান, কিশোরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুল মালেক চৌধুরীসহ আরও অনেকে।

বক্তরা সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, কুড়িগ্রামের ঘটনায় জড়িত ডিসিসহ সবাইকে আইনের আওতায় আনা, আরিফুলের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার ও ভবিষ্যতে এ ধরণের ঘটনা যেন না ঘটে তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

এর আগে শুক্রবার মধ্যরাতে বাড়িতে হানা দিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন-এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে তুলে নিয়ে এসে মোবাইল কোর্টে ১ বছরের জেল দেয় জেলা প্রশাসন।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার পর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমার নেতৃত্বে কয়েকজন ম্যাজিস্ট্রেট আনসার সদস্যদের নিয়ে তার শহরের চড়য়া পাড়ার বাড়িতে যায়। এক পর্যায়ে দরজা ভেঙে তার ঘরে প্রবেশ করে তার স্ত্রী-সন্তানের সামনেই তাকে মারধর করে ধরে নিয়ে আসে বলে জানায় তার পরিবার।

পরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে তার বাসায় আধা বোতল মদ ও দেড়শ গ্রাম গাঁজা রাখার অভিযোগে তাকে ১ বছরের কারাদণ্ড দেয় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

আরিফুল ইসলামের পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে অনিয়মের সংবাদ পরিবেশন ও ফেসবুকে লেখার কারনে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *