গ্রামীণ টেলিকমের ফিরোজের চাকরি পুনর্বহাল আদেশ সর্বোচ্চ আদালতেও বহাল

ডঃ মোহাম্মদ ইউনুস এর প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ টেলিকম এর শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন এর সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ হাসান এর চাকরি পুনর্বহাল এর আদেশ বহাল রেখেছেন সর্বোচ্চ আদালত।

নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ডঃ মুহাম্মদ ইউনূস প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান গ্রামীণ টেলিকমে ট্রেড ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠা ও শ্রমিকরা WPPF তথা প্রতিষ্ঠানের ৫% লভ্যাংশ দাবি করায়, গত ২৫ অক্টোবর গ্রামীণ টেলিকম এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুল হাসান এর একটি নোটিশের মাধ্যমে ৯৯ জন কর্মচারীকে চাকরীচ্যুত করা হয়।

গ্রামীণ টেলিকম হতে চাকরিচ্যুত ট্রেড ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ হাসান গত ৫ অক্টোবর তার চাকরীচ্যুতকে অবৈধ চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে একটি পিটিশন দাখিল করেন।

এরই প্রেক্ষিতে উচ্চ আদালতের ৩৫ নং কোর্টের বিচারপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীম এর যৌথ বেঞ্চে গ্রামীণ টেলিকম উক্ত টার্মিনেশন অবৈধ ঘোষণা করে শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন এর সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ হাসানকে পুনর্বহালের আদেশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে গ্রামীণ টেলিকম রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল বিভাগের চেম্বারে সিএমপি ও সিপি আবেদন করেন।

৩ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি সহ চার সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড: মুহাম্মদ ইউনূসের প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ টেলিকম এর আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টে চাকরি পুনর্বহালপুনর্বহালের আদেশটি বহাল রেখেছেন।

গ্রামীণ টেলিকমের ট্রেড ইউনিয়ন, সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ হাসান বলেন, আদালত হলো নিপীড়িত অসহায়ের শেষ আশ্রয়স্থল। আল্লাহর নিকট কৃতজ্ঞ আমি ন্যায়বিচার পেয়েছি। তিনি আরো বলেন, আগামী ৬ ডিসেম্বর আরো ২৬ জনের রায় ঘোষণা করা হবে, ইনশাল্লাহ এই রায় আমরা ন্যায় বিচার পাবো। আশা করি এই মাসের মধ্যে (৯৯ জন) সবাইকেই চাকরিতে পুনর্বহালের আদেশ পাওয়া যাবে।

উল্লেখ্য, শান্তিতে নোবেল বিজয়ী ডঃ মুহাম্মদ ইউনূস শ্রমিকদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করার নীল নকশা বাস্তবায়ন করার জন্য অন্যায় ভাবে ৯৯ জন কর্মীকে চাকরিচ্যুত করা হয়।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *