তীব্র স্রো’তে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচল ব্যাহত

ফেরি সং’কট এবং পদ্মা-যমুনায় পানি বৃদ্ধির ফলে তীব্র স্রোতের কারণে দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের ২১ জেলার অন্যতম প্রবেশপথ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। সেইসঙ্গে যুক্ত হয়েছে আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষ ও কোরবানির গ’রু পারাপারের চাপ। যাত্রীবাহী পরিবহনের

 

সা’রি দীর্ঘ হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন ফেরি পারের অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা। অন্যদিকে, দিনের পর দিন টার্মিনালে থেকেও ফেরির দেখা না পেয়ে দিশেহারা ট্রাকচালকরা।আজ রোববার সকা‌লের দি‌কে দেখা যায়, যানবাহনের সারি দী’র্ঘ হওয়ার ফলে অন্তত ৫০টি যাত্রীবাহী পরিবহন, শতাধিক ছোট গাড়ি (প্রাইভেটকার), দুটি টার্মিনালে চার শতাধিক ট্রাক এবং আরিচা-পাটুরিয়া

 

সংযোগ মোড়ে তিন শতাধিক পণ্যবোঝাই ট্রাক ঘাট এলাকার প্রবেশমুখে অপেক্ষা করছে।বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা সে’ক্টরের এ জি এম খন্দকার মো. তানভীর হোসেন এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ছোট-বড় মিলে এ পর্যন্ত ১৫টি ফেরি চলাচল করছে। এরই মধ্যে গতকাল শনিবার কেরামত

 

আলী নামের একটি বড় ফেরি যুক্ত হয়েছে। সেইসঙ্গে ঈ’দুল আজহা সামনে রেখে ১৭ থেকে ১৮টি ফেরি এই রুটে চলাচল করবে।খন্দকার মো. তানভীর জানান, সারা দেশে বন্যার ফলে নদীগুলোতে প্রচুর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে ফেরি পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। এ ছাড়া মাওয়া ঘাটেও ফেরি চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় যেসব পরিবহন ছিল, তা

 

পাটুরিয়া দিয়ে পার হওয়ার কারণে গাড়ির চাপও অনেকটা বৃ’দ্ধি পেয়েছে।তানভীর আশা প্রকাশ করে জানান, যদি ১৭ থেকে ১৮টি ফেরি চলাচলের ব্যবস্থা করা যায়, তবে ঈদে ঘরমুখো মানুষের পারাপার সহজ হবে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *