দুঃ’সংবাদ, ক’রোনা প্রতিরোধে ব্য’র্থ অ’ক্সফোর্ডের ভ্যা’কসিন।

প্রা’ণঘা’তী ক’রোনাভা’ইরাসেের তা’ণ্ডবে বি’পর্যস্ত হয়ে পড়েছে বিশ্ববাসী। এরই মধ্যে এই ভাই’রাস প্রতিরোধে দিনরাত কাজ করে চলেছেন বিজ্ঞানী ও গবেষকরা। বিজ্ঞানী ও গবেষকদের প্রয়াসে একের পর এক ভ্যাকসিন নিয়ে স্বপ্ন দেখা শুরু করেছেন বিশ্ববাসী।

তা’র মধ্যে সবার চোখ ছিল অক্সফোর্ডের দিকে। কিন্তু ক’রোনাভা’ইরাসেের সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটি নিয়ে হতাশার খবর জানিয়েছেন সেখানকার গবেষকেরা।কোভিড-১৯ এ আ’ক্রান্ত বানরের ও’পর পরীক্ষায় অকার্যকর হয়েছে তাদের তৈরি ভ্যাকসিনের ট্রায়াল। এ ট্রায়ালের পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অক্সফোর্ডের এ ভ্যাকসিন আসলে ক’রোনাভা’ইরাসে সারাতে কার্যকরী না।

ত’বে নিউমোনিয়ার মতো ঠান্ডাজনিত রো’গ সারাতে পারে।সিএইচএডিওএক্স১ এনসিওভি-১৯’ নামের ভ্যাকসিনটি শিম্পাঞ্জির সাধারণ কোল্ড ভাই’রাস দূর করার জন্য প্রয়োগ করা হয়, এর দুর্বল সংস্করণ মানুষের শরীরেও কাজ করে কি-না তা নিয়ে পরীক্ষা চলছে।

মে মা’সের শেষ নাগাদ এ ভ্যাকসিনের ৫০ লাখ ডোজ উৎপাদনের ঘোষণা দেয় পুনেভিত্তিক ভারতের ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটও। ‘অক্সফোর্ড ভ্যাকসিন গ্রুপ’ – এ যে ভ্যাকসিনটি নিয়ে কাজ চলছে তাতে বিশ্বের সাতটি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ আছে; পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট একটি।

মে মা’সের শেষ নাগাদ এ ভ্যাকসিনের ৫০ লাখ ডোজ উৎপাদনের ঘোষণা দেয় পুনেভিত্তিক ভারতের ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটও। মে মাসের শেষ নাগাদ এ ভ্যাকসিনের ৫০ লাখ ডোজ উৎপাদনের ঘোষণা দেয় পুনেভিত্তিক ভারতের ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটও।

‘অ’ক্সফোর্ড ভ্যাকসিন গ্রুপ’ – এ যে ভ্যাকসিনটি নিয়ে কাজ চলছে তাতে বিশ্বের সাতটি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ আছে; পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট একটি।তাতে বলা হয়েছে, এই ভ্যাকসিন হয়তো মানুষকে ক’রোনায় আ’ক্রান্ত হওয়া বা অন্যের মধ্যে এই রো’গের সং’ক্র’মণ ছড়িয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে মহৌষধ হতে পারবে না। যদিও এই গবেষণা প্রতিবেদন আরও পর্যালোচনা করা হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *