1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan :
  2. alireza.kg2014@gmail.com : Ali Reza Sumon : Ali Reza Sumon
  3. hrbiplob2021@gmail.com : News Editor : News Editor
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:-
জাতীয় স্লোগান হিসেবে ‘জয় বাংলা’ ব্যবহারের নির্দেশঃ হাইকোর্ট প্রতি বছরের মতো বৌলাই পীর সাহেব বাড়িতে পবিত্র আশুরা পালিত বউ শ্বাশুড়ির ঝগড়ায় ছেলের আত্মহত্যা কিশোরগঞ্জ জেলা টিসিবি ডিলার এ্যাসোসিয়েশন’র সভাপতি আঃ হেকিম ও সাধারণ সম্পাদক রতন কিশোরগঞ্জে পরকীয়ার জেরে হত্যা; ৪৮ ঘন্টার মধ্যে চার্জশিট দাখিল তাড়াইলে ডা.মমিন ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন শোলাকিয়া জঙ্গি হামলায় নিহতদের স্মরণে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন চিকিৎসকের ফেসবুক পোস্টে অজ্ঞাত রোগীর সন্ধান পেলো স্বজনরা পদ্মা সেতু উদ্বোধন আনন্দের জুয়ার কিশোরগঞ্জে তাড়াইলে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আনন্দ মিছিলের পরিবর্তে ত্রাণ বিতরণ কিশোরগঞ্জে বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার

ধসে গেছে রৌমারী শহররক্ষা বাঁধের ৩৮০ মিটার

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ২২ মার্চ, ২০২০
  • ১০১ সংবাদটি দেখা হয়েছে

এজি লাভলু, স্টাফ রিপোর্টার:

ভরাট হওয়া সোনাভরি নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় নদীতে ধসে গেছে রৌমারী শহররক্ষা বাঁধের ৩৮০ মিটার। গত বন্যায় ধসে গেলেও অদ্যাবধি বাঁধটি সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেয়নি বাঁধটি রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা ‘ধনারচর পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিটেড’। এমতাবস্থায় আতঙ্ক নিয়ে বসবাস করছে প্রায় ২১ গ্রামের মানুষ।

তারা বলছে, বর্ষা আসার আগেই সংস্কার না করা হলে প্লাবিত হবে গ্রামগুলো। ডুবে যাবে রৌমারী উপজেলার কর্তিমারী বাজার, রৌমারী-ঢাকা ডিসি সড়ক, চিকিৎসালয়, আটটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন ধর্মীয় স্থাপনা ও বসতবাড়ি। ক্ষতির মুখে পড়বে ৩০টিরও বেশি মত্স্য খামার ও প্রায় সাড়ে ৯ হাজার হেক্টর ফসলি জমি।

কর্তিমারী ঘাট এলকার মো: হাবিবুর রহমান বলেন, গত ৮/৯ বছর আগে একটি চক্র কয়রা নদী থেকে ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে বালু উত্তোলন শুরু করে। স্থানীয়দের তীব্র বাধা থাকলেও প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় বারবার পার পেয়ে যায় তারা। এর ফলশ্রুতিতে গত বন্যায় প্রায় ১০ কিলোমিটার বাঁধের ৩৮০ মিটার জায়গা পুরো নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

জানা যায়, জিওবি জাইকার অর্থায়নে ২০০৮-০৯ অর্থবছরে ১ কোটি ২৯ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয় রৌমারী উপজেলার ধনারচর বেড়িবাঁধ। এলজিইডির তত্ত্বাবধানে ঐ উপ-প্রকল্পটি ‘ধনারচর এফএমডি’ নামে পরিচিতি পায়। যা ‘ধনারচর পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিটেড’-এর বাস্তবায়ন করে। বাঁধ নির্মাণের পর থেকে এখন অকাল বন্যা থেকে মুক্ত ঐ অঞ্চলের ছোটো-বড়ো অন্তত ২১টি গ্রাম।

ধনারচর পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা বলেন, নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও ভয়াবহ বন্যার কারণে বাঁধটি ভেঙে গেছে। উপজেলা ক্ষুদ্র পানি ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় বাঁধটি নির্মাণের আবেদন করেছি আমরা।

রৌমারী উপজেলা উপসহকারী প্রকৌশলী মো: মেজবাউল আলম বলেন, ধনারচর পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিটেডের আবেদনের পর জরিপ শেষে বাঁধটি সংস্কারের জন্য কুড়িগ্রাম অফিসে প্রকল্প প্রস্তাবটি পাঠিয়েছি। অনুমোদিত হলে সংস্কারের কাজ শুরু হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আল ইমরান বলেন, বিষয়টি জানার পর সঙ্গে সঙ্গে আমি উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তাকে সেখানে পাঠিয়েছিলাম। বর্তমানে ড্রেজারে মাটি কাটা বন্ধ রয়েছে। তালিকা করতে বলেছি। যারা এ অপকর্মের সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments Box

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

All rights reserved © 2021 Newsmonitor24.com
Theme Customized BY IT Rony