ধেয়ে আসছে ক’রোনার চেয়েও ভ’য়ংকর রো’গ।

বি’জ্ঞানিরা বলছেন, পৃথিবীতে সুপারভাই’রাসের আগমন ঘটছে।যা আমাদের জন্য চ’রম হতাশার কারণ।

ক’রোনার থাবায় সারাবিশ্ব এখন বি’ধ্বস্ত। আর এই জন্যই মনে হয় বিজ্ঞানিদের টনক নড়েছে।বাংলাদেশের ২ ও’ষুধ: ৪ দিনেই ক’রোনা নেগেটিভ!আরও বেশি ভালো থাকা এবং বিত্তবান হওয়ার সমাহিন লাভের শি’কার হয়ে মানুষ প্রতিনিয়ত নিগড়ে নিচ্ছে পৃথিবীর ঐশ্বর্য ভান্ডার।

সে’ই লাভের বসে মানুষ যেন ভু’লেই গেছে কোথায় গিয়ে থামতে হবে তাকে।এদিকে মেরুঅঞ্চল সহ তুন্দ্রা, সাইবেরিয়া, আলাস্কা ও গ্রীনল্যান্ডের বরফ গলছে। লক্ষ লক্ষ বছর ধরে জমাটবা’ধা এই বরফগুলোর ভেতর কি এমন আছে, এই নিয়ে বিজ্ঞানিরা করেন গবেষণা। গবেষণা করে বিজ্ঞানিরা অবাক হয়েছেন।এর ভেতরই লুকিয়ে আছে সুপারভাই’রাসের ইতিহাস। এই বরফের ভেতরই জমিয়ে আছে সুপারভাই’রাস।

এ’মন ভ’য়ংকর জীবনু রয়েছে, যা মানবসভ্যতা জীবনে কখনো দেখিনি।গবেষণার ফলাফল নিয়ে একজন বিজ্ঞানী বলেন, আমরা প্রথমবারেই ৩০ হাজার বছরের পুরনো একটি সুপার ভাই’রাসকে জাগিয়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি। যে ভাই’রাস জাগার সাথে সাথেই একটি অ্যামিবা কে আ’ক্রমণ করেছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন তারা জানেন না এই ফার্ম অফ স্ট্রিত রেয়ার কি ধরনের জী’বাণু লুকিয়ে আছে। এটা বলা বা অনুভব করা কখনো সম্ভব না।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *