1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan :
  2. alireza.kg2014@gmail.com : Ali Reza Sumon : Ali Reza Sumon
  3. hrbiplob2021@gmail.com : News Editor : News Editor
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৩:২২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:-
জাতীয় স্লোগান হিসেবে ‘জয় বাংলা’ ব্যবহারের নির্দেশঃ হাইকোর্ট কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ৩৩৫ জন কর্মহীন পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার কিশোরগঞ্জে কোরবানির ডিজিটাল পশুর হাট কুড়িগ্রাম জেলা যুবলীগের উদ্যোগে অন্ধ প্রতিবন্ধীদের মাঝে নগদ টাকা ও খাদ্য বিতরণ কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিনামূল্যে শাক-সবজি বাজার উ‌দ্বোধন করিমগঞ্জ থেকে গাঁজা ও নগদ অর্থ’সহ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব আশরাফ আলী সোহান একজন তরুন উদ্যোক্তা সব্যসা‌চী লেখক ও ক‌বি ‌সৈয়দ শামসুল হ‌কের সমাধী‌তে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলী‌গের শ্রদ্ধা বাংলা’র শিক্ষক গাইছেন হিন্দিতে! কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহবায়ক দানিস আর নেই হিয়া ইলেক্ট্রনিক্সকে অবাঞ্ছিতকরন প্রসঙ্গে

নীতিমালা মেনেই পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৪৭ সংবাদটি দেখা হয়েছে

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: গত ২৯ আগস্ট ২০২০ ইং তারিখে অনলাইন পত্রিকা “নিউজ মনিটর২৪কম”-এ “নীতিমালা অমান্য করে পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল জাতীয়করণের পায়তারা” শিরোনামে নিউজ প্রকাশিত হয়, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। জয়মনিরহাট বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয় এবং পুণর্বাসন কেন্দ্র-এর প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল-এর ভূয়া নিউজ প্রচার মর্মে নিউজ প্রকাশিত হয়েছিল।

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল-এর জয়মনিরহাট বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয় এবং পুর্নবাসন কেন্দ্র নামে একটি স্কুল আছে। উক্ত স্কুলের শিক্ষক নুরুল্লাহ, পিতা: হোসাইন আলী, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জলের নামে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন গত ২৭ জানুয়ারী ২০২০ ইং তারিখে। যাহার ডকেট নং- ৭৭১, তাং- ২৮/০১/২০২০ খ্রী। উক্ত অভিযোগে নুরুল্লাহ জানান, তার কাছ থেকে ১৫ নভেম্বর ২০১৫ ইং তারিখে নিয়োগ দানের কথা বলে ১,৯৫,০০০/- (এক লক্ষ পচানব্বই হাজার) টাকা নিয়ে একটি ভূয়া নিয়োগ প্রদান করে। সে মোতাবেক নুরুল্লাহ নিয়মিত উক্ত স্কুলে চাকুরী করে আসিতেছিলো। কিন্তু ১২ নভেম্বর ২০১৯ ইং তারিখে প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জলের কাছে নিয়োগপত্র চাইলে তিনি পুনরায় তিন লক্ষ টাকা দাবী করেন। এত টাকা দিতে রাজী না হলে প্রধান শিক্ষক তাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে বিদ্যালয় থেকে বের করে দেন এবং বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখান এবং আরও বলেন যে, এ ব্যাপারে কোথাও কোন অভিযোগ দায়ের করলে তোকে মেরে গুম করে ফেলা হবে।

এখানে আরও উল্লেখ্য যে, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল তার বিদ্যালয়ের নামে অনিয়ম ও নিয়োগ বাণিজ্য সহ কোটি কোটি টাকার নিয়োগ বাণিজ্য করেন। বিষয়টি প্রমাণিত।

প্রতিবেদনে জানা যায়, নুরুল্লাহ গত ২৫ আগস্ট ২০২০ ইং তারিখে মাননীয় সচিব, অতিরিক্ত সচিব ইসমাইল হোসেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় বরাবরে যখন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল-এর নামে অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগ দায়ের করেন ঠিক তখনই পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়ের নামে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন যা প্রমাণিত।

মোঃ জামাল হোসেন, সমাজসেবা অধিদপ্তর ভূরুঙ্গামারী জানান, সরকারী বিধিমালা অনুকরণ করে পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। পত্রিকায় যে নিউজ প্রকাশিত হয়েছে সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

পরিদর্শন প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যে, পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়টি ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে অদ্যাবধি সুনামের সহিত চলিয়া আসিতেছে। বিদ্যালয়টিতে ১৫ অক্টোবর ২০১৮ ইং তারিখে স্মারক নং- ৪১.০১.৪৯০০.০০০.১৬.০৪২.৬৫২(৪) উপ-পরিচালক, সমাজসেবা কার্যালয়, এস.এম জোবায়দুল ইসলাম কুড়িগ্রাম সাহেব পরিদর্শনে দেখা যায় যে, বিদ্যালয় এবং শিক্ষক কর্মচারী এবং শিক্ষার্থী সন্তোষজনক এবং বিদ্যালয়টি একান্ত প্রয়োজন। বিগত ২৮ জানুয়ারী যাহার স্মারক নং- জেপ্রাশিঅ/কুড়ি:/৩০৮ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জনাব স্বপন কুমার রায় চৌধুরী সাহেব পরিদর্শন করেন এবং উনার পরিদর্শনেও বিদ্যালয়টি পাঠদানের জন্য যথাযথ উপযুক্ত এবং ভৌত অবকাঠাবো যথাযথ রয়েছে, অত্র এলাকায় বিদ্যালয়টি একান্ত প্রয়োজন। পরিদর্শন প্রতিবেদনে আরও দেখা যায়, ০১ জানুয়ারী ২০২০ ইং তারিখে প্রতিবন্ধীতা সম্পর্কিত সমন্বিত বিশেষ নীতিমালা ২০১৯ এর পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষ বিদ্যালয় সমুহের পাঠদান স্বীকৃতি/ এমপিও ভূক্তির নিমিত্তে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রতিবন্ধী স্কুলের পক্ষ থেকে সঠিক তথ্যাভিত্তিতে আবেদন চাওয়া হয় যা ছিল উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক একজন মনোনীত আর তিনি হলেন জনাব মুকুল চন্দ্র বর্মন, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার ভূরুঙ্গামারী, কুড়িগ্রাম সাহেব উনার পরিদর্শন প্রতিবেদনে দেখা যায় উক্ত বিদ্যালয়ের ছাত্র ১৪৬ জন, ছাত্রী ১২৪ জন সর্বমোট ২৭০ জন ছাত্রছাত্রী। শিক্ষকবৃন্দের ছবি, একটি থ্রেরাপি রুম, একটি ভোকেশনাল প্রশিক্ষণ কক্ষ, একটি অফিস সহকারী কক্ষ ও একটি প্রধান শিক্ষকের কক্ষ বিশিষ্ট টিনশেট দৈর্ঘ্য ১৩৪ ফিট ঘর মেঝে পাকা করা রয়েছে। পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রিকৃত ২০ শতক জমিও রয়েছে।

আরও উল্লেখ্য যে, ০১ জানুয়ারী ২০২০ ইং তারিখে দুপুর ১২ ঘটিকায় ৫ মিনিটের পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়ের একটি ভিডিও আপলোড করা হয়। যাতে দেখা যায়, ছাত্র/ছাত্রী, শিক্ষক, কর্মচারীবৃন্দ পাঁচটি ক্লাশ রুম, একটি থ্রেরাপি রুম, একটি ভোকেশনাল প্রশিক্ষণ রুম এবং সম্পূর্ণ স্কুলের ছবি ও ভিডিও মুকুল চন্দ্র বর্মন, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার, ভুরুঙ্গামারী, কুড়িগ্রাম এর উপস্থিতিতে করা হয়।

আমাদের প্রতিনিধি সরেজমিনে গিয়ে জানতে পারে যে, উক্ত নিউজটি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল, প্রধান শিক্ষক, জয়মনিরহাট বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয় এবং পুর্নবাসন কেন্দ্র, ভুরুঙ্গামারী, কুড়িগ্রাম তার নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য নিউজটি করে।

আমাদের প্রতিনিধি আরও জানতে পারে যে, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জলের একটি প্রতিবন্ধী স্কুল আছে, তার স্কুলটি সচল রাখতে প্রতিপক্ষের স্কুলটিকে তলানীতে ফেলার জন্য এসব করছে।

মোঃ জাহিদুল ইসলামকে উক্ত নিউজে মাদক সেবক হিসেবে উল্লেখ্য করা হয়েছে, মুলত উক্ত ব্যক্তি কখনও মাদক সেবী নন। মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল নিজেই একজন প্রকৃত মাদক সেবী সে ব্যাপারে ভুরুঙ্গামারী উপজেলার জয়মনিরহাট ইউনিয়নের সবাই জানে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় আশাদুল হক তালুকদার, জয়মনিরহাট অটিজম বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম মোস্তফা জানান মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল এলাকায় একজন চিহ্নিত মাদক সেবী। তার মাদকের অত্যাচারে এলাকায় থাকা কষ্টকর, সে এলাকার তরুন সমাজকে নষ্ট করছে মাদকের কারণে।

জয়মনিরহাট ইউনিয়নের পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ হাফিজুর রহমান জানান, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল উক্ত এলাকার একজন চিহ্নিত মাদকসেবী। তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে।

জয়নমনিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান প্রভাষক মোঃ সাখাওয়াত হোসেন (সানোয়ার) জানান, জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল একজন নিয়মিত মাদক সেবী। তার ব্যাপারে এলাকাবাসীর অনেক অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম উজ্জল জানান, নুরুল্লাহ আমার স্কুল থেকে শিক্ষক পদে চাকুরীর জন্য টাকা প্রদান করেছে এবং আমার সময়মত উক্ত টাকা পরিশোধ করবো।

পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে এ ব্যাপারে কথা বলে জানা যায় যে, আমাদের স্কুলের নামে যে নিউজ প্রকাশিত হয়েছে যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এতে করে আমাদের স্কুলের সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

পাইকেরছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক সরকার জানান, পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়টি ভুরুঙ্গামারী সদর উপজেলা থেকে ১ কিলোমিটারের ভিতরে অবস্থিত। উক্ত স্কুলটি এলাকার জন্য খুবই জরুরী। যদি স্কুলটি কর্তৃপক্ষ ঠিকমত নজর দেন তাহলে এ এলাকার প্রতিবন্ধীদের জন্য খুবই কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।

ভূরুঙ্গামারী উপজেলার নির্বাহী অফিসার জানান, আমার জানামতে উক্ত পাইকেরছড়া বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়টি সরকারের সব নিয়মকানুন মেনেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমরা এ ব্যাপারের সমাজসেবা মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করবো যাতে স্কুলটি স্বীকৃতিপ্রাপ্ত হয়।

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

All rights reserved © 2021 Newsmonitor24.com
Theme Customized BY IT Rony