প্রেমের টানে ভারতীয় কিশোরী বাংলাদেশে, পতাকা বৈঠকের পর ফেরত

এজি লাভলু, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: প্রেমের টানে ভারত থেকে বাংলাদেশে চলে আসে ১৪ বছরের কিশোরী নুর“ন্নাহার খাতুন। খবর পেয়ে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে ভারতে ফেরত পাঠিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা।

জানা যায়, প্রেমের টানে গত বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) রাতে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীর কুর“ষা ফের“ষা সীমান্তের আন্তর্জাতিক মেইন পিলার ৯৩৬ এর পাশ দিয়ে ভারতীয় কিশোরী নুর“ন্নাহার খাতুন (১৪) বাংলাদেশ সীমান্তে অনুপ্রবেশ করে। এরপর সে বাংলাদেশি যুবক প্রেমিক সাগর মিয়ার (১৮) কাছে চলে আসে। সাগরের বাবার নাম রফিকুল ইসলাম। সাগর কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীর বাসিন্দা। অন্যদিকে নুর“ন্নাহার খাতুনের বাড়ি ভারতের সীমান্তবর্তী কোচবিহার জেলার দিনহাটা থানার বসকোঠাল গ্রামে। তার বাবার নাম নুর ইসলাম।

ভারতীয় কিশোরী নুর“ন্নাহারের বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের খবর পায় লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি শিমুলবাড়ী ক্যাম্পের সদস্যরা। এরপর তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের মাধ্যমে তাকে উদ্ধার করে। পরে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সঙ্গে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর তাকে ভারতে ফেরত পাঠায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিজিবির শিমুলবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার জানান, গতকাল শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে কুর“ষা ফের“ষা সীমান্তে আন্তর্জাতিক পিলার ৯৩৬ এর পাশে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ওই কিশোরীকে বিএসএফের মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

পতাকা বৈঠকে নেতৃত্ব দেন বিজিবির শিমুলবাড়ী ক্যাম্পের হাবিলদার আব্দুল আজিজ। অন্যদিকে বিএসএফের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ৩৮ ব্যাটালিয়নের বসকোঠাল ক্যাম্পের ইন্সপেক্টর কে আর সিং। এছাড়া এ বৈঠকে দুই দেশের স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *