ভ’য়ভী’তি দেখিয়ে সা’লিশ থেকে ধ’র্ষককে উ’ঠিয়ে নিলো, বৈঠকে জ্ঞা’ন হা’রালেন ধ’র্ষিতা।

কু’ড়িগ্রামের রাজারহাটে মা’দরাসা ছা’ত্রি ধ’র্ষণ ও ধ’র্ষককে উ’ঠিয়ে নিয়ে যাওয়ায় ধ’র্ষক সহ ৪ জনের বি’রুদ্ধে মঙ্গলবার রাতে থানায় মা’মলা হয়েছে।মা’মলা সূত্রে জানা গেছে,উপজে’লার ঘড়িয়ালডাঁঙ্গা ই’উনিয়নের ফতেখাঁ কারামতিয়া দাখিল মা’দরাসার এক দাখিল প’রীক্ষার্থীনীর সাথে  উলিপুর উপজে’লার ঠুটাপাইকর ইউনিয়নের কর্পূরা গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের পুত্র সেফারুল ইসলাম (২৫) এর পূর্ব পরিচয় ছিল।

এ’রই সু’বাদে গত ১৩ এপ্রিল বিকেলে তাকে বি’য়ের প্র’লোভন দিয়ে উলিপুর উপজে’লার সাহেবের কুঠি গ্রামে সেফারুলের ভগ্নিপতি রফিকুল ভাংরীর বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে সেখানে জোড় পুর্বক মে’য়েটিকে ধ’র্ষণ করে। ওই রাতে আবারো ধ’র্ষক ছা’ত্রীটিকে ফু’সলিয়ে নিয়ে রাজারহাট উপজে’লার বোতলারপাড় বাজারে আসলে এ’লাকাবাসী স’ন্দেহ জ’নকভাবে তাদেরকে আ’টক করে।এসময় ছা’ত্রীটি ধ’র্ষিতা হওয়ার অ’ভিযোগ করে।

এ’নিয়ে প’রদিন রাতে স্থা’নীয় রাজারহাট উপজে’লা ভাইস চেয়ারম্যান আশিকুল ইসলাম সাবুর বাড়িতে শালিসি বৈঠক হয়। শালিসে ধ’র্ষক সেফারুল ধ’র্ষনের কথা স্বী’কার করে। এসময় বোতলারপাড় গ্রামের নজরুল ইসলামের পুত্র রফিকুল ইসলাম সহ ৪/৫জন ব্য’ক্তি লা’ঠি সোডা নিয়ে শালিস বৈঠকে উপস্থিত হয়ে বিভিন্ন ভ’য়ভীতি দেখিয়ে ও বি’ষয়টি আপোস করার মি’থ্যা আশ্বাস দিয়ে ধ’র্ষক সেফারুলকে উ’ঠিয়ে নিয়ে যায়।

প’রে ধ’র্ষিতা জ্ঞান হা’রিয়ে অ’চেতন হয়ে পড়লে তাকে অ’সুস্থ্য অবস্থায় রাজারহাট উপজে’লা স্বা’স্থ্য ক’মপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।এঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে ধ’র্ষিতার পিতা বা’দি হয়ে ধ’র্ষক সেফারুল সহ ৪জনের বি’রুদ্ধে রাজারহাট থানায় মা’মলা দা’য়ের করেন।রাজারহাট থানার অ’ফিসার ই’নচার্জ রাজু স’রকার মা’মলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আ’সামী গ্রে’ফতারে পু’লিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *