1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan :
  2. alireza.kg2014@gmail.com : Ali Reza Sumon : Ali Reza Sumon
  3. hrbiplob2021@gmail.com : News Editor : News Editor
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:-

মার্চেই চালু হবে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সকল সেবা

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৬৭ সংবাদটি দেখা হয়েছে

শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা কমিটির তৃতীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডাঃ সৈয়দা জাকিয়া নুর লিপি।

শনিবার (পহেলা ফেব্রুয়ারি) শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজও হাসপাতালের হল রুমে স্থানীয় সংসদ সদস্য ডাঃ সৈয়দা জাকিয়া নুর লিপি সহ ব্যবস্থাপনা পরিষদের সকলের উপস্থিতিতে সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল আগামী ১৭ই মার্চ ইমার্জেন্সি ও ইনডোর চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক মোঃ সারোয়ার মোর্শেদ চৌধুরী, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এর পরিচালক ডাঃ সাইফুর রহমান, অধ্যক্ষ সজল কুমার সাহা,সিভিল সার্জন ডাঃ মজিবুর রহমান, পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধুরী, , বিএমএ এর সভাপতি ডাঃ মাহাবুব ইকবাল, বিএমএ এর সাধারণ সম্পাদক ডাঃ এম এ ওয়াহাব বাদল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল কাদির মিয়া সহ আরো অনেকেই। সভা পরিচালনা করেন সহকারী পরিচালক ডাক্তার মঞ্জুরুল হক।সূত্র:মেডিকেল কলেজ

উল্লেখ্য, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আউটডোর চালু হয়েছিল জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গত গত ১৫ আগস্ট ২০১৯ সালে।

১৫ আগস্ট ২০১৯ সালে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের কলেজ ও হাসপাতালের বহির্বিভাগ (আউটডোর) উদ্বোধন করেন, কিশোরগঞ্জ হোসেনপুর আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ সৈয়দা জাকিয়া নুর লিপি। প্রায় ছয় মাস হয়ে গেল কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এর বহির্বিভাগ চালু হলেও কিশোরগঞ্জ জেলা প্রায় ৩৫ লক্ষ মানুষ এখনো চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত।

কিশোরগঞ্জ জেলায় ৩৫ লক্ষ মানুষের বিপরীতে একটি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল থাকলেও ডিপার্টমেন্টাল অনুযায়ী নেই কোন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। যে কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ছিলেন তারাও মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের নিয়ে চলে গেছেন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চালু হওয়ার সাথে সাথেই।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আশার বাণী শোনালেও নতুন কোন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এখন পর্যন্ত ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়নি। অন্যদিকে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল ইমার্জেন্সি এবং ইনডোর চালু না হওয়ায় রোগীরা সঠিক চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত।

কিশোরগঞ্জবাসী আশা করছেন, তাদের প্রত্যাশিত শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সকল বিভাগ যথাসময়ে চালু হবে।

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

All rights reserved © 2021 Newsmonitor24.com
Theme Customized BY IT Rony