যান’বাহন স’ঙ্কটে সহযোগিতা চেয়ে ধ’র্ষণের শি’কার পোশাক’ক’র্মী

ক’রোনা পরিস্থিতি’তে যান’বহন স’ঙ্কটের কারণে গাজী’পুর থেকে খুলনায় বাড়ি ফেরার পথে গোপালগঞ্জে এক পোশাককর্মী (২৫) ধ’র্ষণের শি’কার হয়েছেন। সোম’বার রাতে শহরতলীর ঘোষরচর এলাকায় এ ধ’র্ষণের ঘটনা ঘটে।

ওই দিন রাতেই শহরের মৌলভিপাড়া এলাকা থেকে ধ’র্ষক ইজিবাইক চালক খায়রুল ইসলাম’কে (২৬) গ্রে’ফতার করে পুলিশ। গ্রে’ফতার ইজি’বাইক চালক খায়রুল পুলিশের কাছে পোশাক’ক’র্মীকে ধ’র্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোপাল’গঞ্জ সদর থানা পুলিশের ওসি মো.মনিরুল ইসলাম। মঙ্গলবার গোপাল’গঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভু’ক্তভোগীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা.অসীত কুমার মল্লিক।

এ ঘটনায় ওই পোশাক’ক’র্মী বা’দী হয়ে গোপাল’গঞ্জ সদর থানায় ইজি’বাইক চালক খায়রুল’কে আ’সামি করে মা’মলা করেছেন। গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, ভি’কটিম গাজী’পুরের একটি কারখানায় চাকরি করেন। ক’রোনা পরিস্থিতির কারণে গাজীপুর লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

ফলে কারখানা বন্ধ হয়ে যায়। ঢাকার জুরাইনে ভাইয়ের বাসায় দুইদিন অবস্থানের পর সোম’বার ঢাকা থেকে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা দেন পোশাককর্মী।পরিবহন স’ঙ্কটের কারণে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ থাকায় তিনি বিভিন্ন যান’বহনে ভে’ঙে ভে’ঙে রাত সাড়ে ৮টার দিকে গোপাল’গঞ্জ পুলিশ লাইনস মোড়ে এসে পৌঁছান।

সেখানে খুলনা’গামী পরিবহনের জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি।
এ সময় ইজি’বাইক চালক খায়রুলের কাছে সহযোগিতা চান পোশাক’ক’র্মী। তখন পোশাক’ক’র্মীকে মঙ্গলবার সকালে খুলনায় পৌঁছে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন;সেই সঙ্গে রাতে তার পরিবারের সঙ্গে থাকার কথা বলেন খায়রুল।

নিরুপায় হয়ে ইজিবাইক চালকের কথায় রাজি হয়ে যান তিনি।
এরপর খায়রুল তার ইজি’বাইকে করে ঘোষরচর এলাকায় পোশাক’ক’র্মীকে নিয়ে যান।সেখানে তাকে ধ’র্ষণ করে ফে’লে রেখে চলে যান খায়রুল।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহয়তায় রাত ১০টার দিকে পোশাক’ক’র্মীকে উ’দ্ধার করে পুলিশ। একই সঙ্গে ধ’র্ষক খায়রুলকে গ্রে’ফতার করা হয়।

এসএম হুমায়ূন কবীর/এএম/পিআর

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *