রা’ত পোহালেই ম’হাবি’পদ সং’কেত।

ভ’য়াবহ শ’ক্তি নিয়ে বাংলাদেশের উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন আম্পান। বুধবার (২০ মে) ভোর ৬টায় মহাবি’পদ সংকেত দেখানো হবে বলে জানিয়েছেন দু’র্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান।মঙ্গলবার (১৯ মে) বিকেলে স’চিবালয়ে দু’র্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ ম’ন্ত্রণালয়ে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা জানান।

প্র’তিমন্ত্রী এনামুর রহমান বলেন, বুধবার ভোর ৬টায় বাংলাদেশ উপকূল দিয়ে ঘূর্ণিঝড়টি প্রবেশ করবে। ওই সময়ে আর কাউকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া সম্ভব হবে না। আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। কোন জে’লায় কতজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে তার জন্য কন্ট্রোল রুম থেকে জানছি।

আ’ম্ফানের গতি বাড়ল, আ’ঘাত আসবে ২৪৫ কিলোমিটার বেগে মা’র্কিন যৌথ টাইফুন সতর্কতা কেন্দ্র জানায়, বঙ্গোপসাগরে রেকর্ড করা ঝড়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আম্পান, যার বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ২৭০ কিলোমিটার (ঘণ্টায় ১৬৫ মাইল)।

আ’ম্পানকে আটলান্টিক মহাসাগরের হ্যারিকেন ক্যাটাগরি-৪ এবং পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরের সুপার টাইফুনের সঙ্গে তুলনা করা হয়।করো’নাভাই’রাস মহামা’রির ঝুঁ’কিতে থাকা ভা’রত ও বাংলাদেশের কয়েক কোটি মানুষকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে এই সুপার সাইক্লোন। বুধবার বিকালের মধ্যে এটি ভা’রত ও বাংলাদেশে আ’ঘাত হানতে পারে।

বাং’লাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান সিএনএনকে বলেন, ‘উপকূলীয় অঞ্চল থেকে প্রায় ২০ লাখ মানুষকে ১২ হাজারেরও বেশি আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *