র্বা’ভাস মিললে সি’ডর-আয়লাকে হা’র মানাবে আ’ম্পান।

প্র’বল শক্তি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উপকূলী অঞ্চলের দিকে এগিয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন আম্পান।বুধবার (২০ মে) দুপুরের পর দীঘার সমুদ্র থেকে বাংলাদেশের হাতিয়াসহ উপকূলীয় অঞ্চলে আছড়ে পড়তে পারে এ ঝড়।কলকাতার আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ২০০৯ সালে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া আয়লা কিংবা ২০০৭ সালের সিডর থেকেও ভ’য়ঙ্কর রূপ নিতে পারে আম্পান।

সে’সময় কলকাতায় প্রতি ঘণ্টায় প্রায় ১০০ কিলোমিটার বেগে বয়ে গিয়েছিল আয়লা। দুই ঝড়েই দুই বাংলায় ব্যাপক প্রা’ণহানিসহ ক্ষয়ক্ষতি হয়।তবে এবারের পূর্বাভাস অনুযায়ী আম্পান যখন স্থলভাগে আ’ঘাত হানবে সে সময় কলকাতায় ঝড় বইতে পারে ১১০ থেকে ১৩০ কিমি বেগে। ফলে স্বভাবতই উদ্বিগ্ন শহরবাসী থেকে প্রশাসন। সে মুহূর্তে শহর কলকাতা কী’ভাবে মোকাবিলা করবে তা সময় বলবে।

কা’রণ কলকাতার বড় সমস্যা বিশাল বিশাল গাছ, পুরনো ঐতিহাসিক উঁচু ভবন, বিশালাকার হোর্ডিং।আম্পানের জেরে মঙ্গলবার বিকেলের পর দুই ২৪ পরগনা, মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি ও কলকাতায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে ঝড়বৃষ্টির পরিমাণ অনেকটা বাড়বে। কলকাতা ও হাওড়া, হুগলিসহ জে’লাগু’লির কিছু অংশে ভা’রী থেকে অ’তি ভা’রী বৃষ্টি হবে। জমবে পানি।

হবে ব’ন্যা।প্রতি মুহূর্তে আম্পানের গতিবিধির ওপর নজর রেখে চলেছে আবহাওয়া দফতর। ফলে হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস জানান দিচ্ছে, দুই বাংলার কাছে এক ভ’য়ঙ্কর অশনিসংকেত এই আম্পান।এরই মধ্যে আম্পানের প্রভাবে দীঘার সমুদ্র উত্তাল হতে শুরু করেছে।

কোম’র বেঁধে নেমেছে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের বিপর্য়য় মোকাবিলা বাহিনী। চলছে সতর্কতামূলক মাইকিং। আম্পানের সতর্কতায় রাজ্যের সুন্দরবন এলাকাসহ প্রায় ৩ লাখ মানুষকে সরিয়ে সাইক্লোন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। প্রতিটা জে’লায় খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, প্রশাসন সবরকমভাবে এই সাইক্লোনের জন্য তৈরি আছে।

ন’বান্নতেও কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে।এছাড়া কেন্দ্রীয় সরকারের ১৭টি ন্যাশনাল ডিজাস্টার ফোর্স (এনডিআরএফ) টিম কাজ শুরু করেছে। এরমধ্যে এনডিআরএফ-এর ৭টি দলকে পাঠানো হয়েছে রাজ্যের দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া ও হুগলিতে। বাকি ১০টি টিম কাজ করছে উড়িষ্যার পুরী, ভুবনেশ্বর, জাজপুর, ময়ুরভঞ্জসহ একাধিক

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *