লেবাননে বিস্ফোরণে আ’হত ২১ বাংলাদেশি নৌসেনার ২০ জনই শঙ্কামুক্ত।

লে’বাননের রাজধানী বৈরুতের সমুদ্রবন্দরের একটি বিস্ফোরক গুদামে বিস্ফোরণে নিকটবর্তী বাংলাদেশ নৌ’বাহিনী জাহাজ বিজয়-এর ২১ জন সদস্য আহত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ২০ জন শঙ্কামুক্ত রয়েছেন।বুধবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর জানায়, আ’হতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তা’কে আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বৈরুত মে’ডিকেল সেন্টারে (এইউবিএমসি) ভর্তি করা হয়েছে।

অন্যদের জাতিসংঘ শান্তি মিশন ইউনিফিলের তত্ত্বাবধানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হেলিকপ্টার ও অ্যাম্বুলেন্সযোগে হামুদ হাসপাতালে ভর্তি করা হ’য়েছে। বর্তমানে তারা আশঙ্কামুক্ত।শান্তিরক্ষা মিশন ইউনিফিলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে আহত নৌ’সদস্যদের চিকিৎসা চলমান রয়েছে।

আইএসপিআর থেকে আরো জানানো হয়, এ দুর্ঘটনায় নৌবাহিনী জাহাজ বিজয় এর বিস্তারিত ক্ষ’য়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে নৌ’বাহিনী জাহাজ, ইউনিফিল সদর দপ্তর ও বৈরুতস্থ বাংলাদেশী দূতাবাসের সাথে নৌবাহিনী সদর দপ্তরের সার্বক্ষণিক যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।

ইউনিফিল হেড অব মিশন এবং ফোর্স কমান্ডার ও মেরিটাইম টাস্কফোর্স কমান্ডার সার্বিক পরিস্থিতি নি’বিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন এবং সর্বাত্মক স’হযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দিয়েছেন।

ঘটনার অব্যবহিত পরই বৈরুতে নিযুক্ত বাংলাদেশী রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মোস্তাহিদুর রহমান সরেজমিনে বানৌজা বিজয় পরিদর্শন করেন এবং আহতদের হাসপাতালে স্থা’নান্তর ও যথাযথ চিকিৎসা প্রদানে প্রয়োজনীয় স’কল প্রকার সহযোগিতা করেন।

উল্লেখ্য, গত ২০১০ সাল হতে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ লেবাননে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশগ্রহণ করে আসছে। ভূ-মধ্যসাগরে মা’ল্টিন্যাশনাল মেরিটাইম টাস্কফোর্সের সদস্য হি’সেবে বর্তমানে নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ‘বিজয়’ ইউনিফিলে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় নিয়োজিত রয়েছে।জাহাজটি লেবাননের ভূ-খন্ডে অবৈধ অস্ত্র এবং গোলাবারুদ অনুপ্রবেশ প্রতিহত করতে দক্ষতার সাথে কাজ করে চলেছে।

পা’শাপাশি লে’বানীজ জলসীমায় উক্ত জাহাজ মেরিটাইম ইন্টারডিকশন অপারেশন, সন্দেহজনক জাহাজ ও এয়ারক্রাফটের উপর গোয়েন্দা নজরদারী, দুর্ঘটনা কবলিত জাহাজে উদ্ধার তৎপরতা এবং লেবানীজ নৌসদস্যদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদানের কাজ করে যাচ্ছে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *