শি’ক্ষকদের বে’তন নি’য়ে মা’উশির বি’রাট সু’খবর।

করো’নার কারণে বন্ধ রয়েছে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যেই নতুন করে এমপিওভুক্ত হওয়া স্কুল-

কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীদের বিশাল সুখবর দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর।

জানা যায়, নতুন করে এমপিওভুক্ত হওয়া শিক্ষক-কর্মচারীদের ১০ মাসের বেতন, দুটি উৎসব ভাতা এবং

বৈশাখী ভাতার চেক ব্যাংকে পাঠানো হয়েছে। গত বছরের ১ জুলাই থেকে নতুন এমপিওভুক্ত হওয়া শিক্ষক-

কর্মচারীদের বেতনের সরকারি অংশ দেওয়া হবে।

মাউশির এক সংবাদ বি’জ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বুধবার ২৪টি চেকের মাধ্যমে এসব বেতন-ভাতার চেক অগ্রণী ও

রূপালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে এবং জনতা ও সোনালী ব্যাংকের স্থানীয় কার্যালয়ে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আগামী ৩১ মে পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ব্যাংক থেকে শিক্ষক-কর্মচারীরা বেতন-ভাতা তুলতে পারবেন।

নতুন এমপিওভুক্ত হওয়া ২ হাজার ৫৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের সরকারি বেতন দিতে

গত ২৯ ও ৩০ এপ্রিল দুটি আদেশে এমপিও (মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার) কোড দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপর

শিক্ষকরা সরকারি বেতন-ভাতা পেতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে আবেদন করেন।

গত বছরের ১ জুলাই থেকে গত মা’র্চ মাস পর্যন্ত বকেয়া নয় মাসের বেতন, গত এপ্রিল মাসের বেতন, গত

কোরবানির ঈদের উৎসব ভাতার সঙ্গে রোজার ঈদের উৎসব ভাতা একসঙ্গে ছাড় করেছে সরকার।

এ প্রসঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. রুহুল আমিন বলেন, ‘গত বছরের ১

জুলাই থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত বকেয়াসহ বেতন-বোনাস পাচ্ছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। গত বছরের

আগস্টে ঈদুল আজহা, বৈশাখী ভাতা-১৪২৭ নতুন শিক্ষকরা বকেয়া হিসেবে পাচ্ছেন। এছাড়া আগামী ঈদুল ফিতর-২০২০ এর ভাতা পাচ্ছেন।’

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২৩ অক্টোবর ২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিভুক্ত করে সরকার। ওই সব

প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের সরকারি বেতনের অংশ দিতে এমপিও কোড দেওয়া হয়। এর আগে সবশেষ

২০১০ সালে এক হাজার ৬২৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছিল। এমপিও বা মান্থলি পেমেন্ট

অর্ডারের তালিকাভুক্ত বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীরা তাদের বেতনের একটি অংশ সরকার থেকে পান।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *