শ্বা’সকষ্ট নিয়ে হা’সপাতালে যাওয়ার পথে গা’ড়িতেই ব্যাংকারের মৃ’ত্যু।

শ্বা’সকষ্ট নিয়ে ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অভ ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজে (বিআইটিআইডি) চিকিৎসা নিতে আসা এক ব্যাংক কর্মকর্তাকে ভর্তি না করানোয় সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে যাওয়ার পথে গাড়িতে তার মৃত্যু হয়।

ও’ই ব্যাংক কর্মকর্তা জামশেদ হায়দার চৌধুরী ছিলেন এনসিসি ব্যাংকের নগরীর আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকা শাখার এসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট (এভিপি)।

সো’মবার (১১ মে) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।জামশেদ হায়দারের ভাই জিয়া হায়দার বলেন, “ভাইয়ার জ্বর ও শ্বাসকষ্ট ছিল।ফৌজদারহাটেরবিআইটিআইডিতে তাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাই কিন্তু সেখানে ভর্তি নেয়নি কর্তৃপক্ষ। করোনা টেস্ট করাতে চেয়েছি।

এ’তেও রাজি হয়নি তারা। পরে চমেক হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।”বিআইটিআইডি’র পরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল হাসান বলেন, “একজন রোগী হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে এসেছিলেন বলে শুনেছি। তার শ্বাসকষ্ট থাকলেও জ্বর ছিল না।

যে’হেতু ওই রোগী আগে থেকেই হৃদরোগে ভুগছিলেন তাই চিকিৎসকরা তার অবস্থা দেখে এখানে না রেখে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দিয়েছেন।”সাধারণত হার্টের কোনো সমস্যা থাকলে শ্বাসকষ্টের পরিমাণ বেড়ে যায়। তাই বিআইটিআইডি’র চিকিৎসকরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান অধ্যাপক ডা. আবুল হাসান

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *