সদ্য ভূমিষ্ঠ সন্তানের পর করোনায় চিরবিদায় নিলেন মেডিক্যাল শিক্ষা’র্থী মাও

চিকিৎসকদের সংগঠন ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি রাইটস অ্যা’ন্ড রেসপন্সিবিলিটিস ( এফডিএসআর) এর যুগ্ম মহাসচিব ডা. রাহাত আনোয়ার চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ডা. রাহাত আনোয়ার বলেন, শেফা ইসলাম তুলি হলি ফ্যা’মিলি রে’ড ক্রিসেন্ট মেডিক্যাল কলেজের ১৫তম ব্যাচের প’ঞ্চম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

 

গত শুক্র’বার তিনি প্রথম সন্তান প্রসব করেছিলেন। তুলির বন্ধু নাফিসা তাহসীন বলেন, তুলির জ্বর ছিল, কিন্তু সেটাকে সবাই ভাইরাল ফিভার বলেই ধরে নিয়েছিল। বাসায় অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছিল, কিন্তু অবস্থার অবনতি হলে গত বৃহস্পতিবার স্ক’য়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরদিন শুক্রবার দুপুরে অ’স্ত্রোপচার করে ওর প্রথম

 

স’ন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু রাতেই ছেলেটা মা’রা যায়। আর তুলিকে অ’স্ত্রোপচারের জন্য যে অজ্ঞান করা হয়েছিল, সেখান থেকে আর ফেরেনি। তবে ওর ডায়াবেটিস আর গ’র্ভকালীন সময়ের কিছুটা জটিলতা ছিল, পরে তো করো’নাতেও আ’ক্রা’ন্ত হয়। নাফিসা বলেন, হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগের দিনও আমর’া বন্ধু’রা ওকে সাহস

 

দেওয়ার জন্য ভিডিও কনফারে’ন্সে ছিলাম, সেখানে বারবার কেবল সে একটা কথাই বলেছিল, আমা’র বাচ্চাটার জন্য দোয়া করিস। আমা’র যাই হোক, আমা’র বাচ্চাটা যেন ভালো থাকে। বাচ্চা’টাকে একবারের জন্য কোলেও নিতে পারেনি, মুখটাও দেখে যেতে পারেনি ও। বাবা মায়ের স’ঙ্গে তুলি ব’নশ্রীর বাসাতে থাকতেন, তার ছোট ভাই ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থী।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *