হতদরিদ্রদের মাঝে খাবার বিতরণ; ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশ জেলা প্রশাসকের

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মহামারী করোনা ভাইরাস এর ক্রান্তিলগ্নে কিশোরগঞ্জ জেলার জীবনচিত্র বদলে গেছে। প্রশাসনের আহ্বানে মানুষ এখন ঘরে ঘরে অবস্থান করছে। খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না কেউ। এ অবস্থায় কাজকর্ম না থাকায় গরিব ও মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজন বিপাকে পড়েছেন। তাদের অনেকে প্রতিদিনের খাবার সংগ্রহ করতে পারছে না। এ পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসন ১৩টি উপজেলায় ১০ হাজার হতদরিদ্র মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে। এর জন্য ১০ লাখ টাকা ও ১০০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এ উপলক্ষে শনিবার (২৮ মার্চ) সকালে জেলা সদরের মডেল মহিনন্দ ইউনিয়ন পরিষদের ভূমি অফিসে হতদ্ররিদ্রদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক সারওয়ার মোর্শেদ চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবদুল্লাহ আল মাসউদ, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আ. কাদির মিয়া, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মামুন আল মাসুদ খান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ডা. মাসুমা আক্তার, সদর উপজেলার যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শাহাদাৎ হোসেন, পিআইও কাওসার আহমেদ, মহিনন্দ ইউপি চেয়ারম্যান মনসুর আলী প্রমুখ।

এই তালিকাভুক্ত প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, পাঁচ কেজি আলু ও দুই কেজি ডাল, মাস্ক, সতর্কতামূলক লিফলেট প্যাকেট করে দেয়া হচ্ছে। এ খাদ্য সহায়তা সংশ্লিষ্টদের বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হবে। তাছাড়া কারো যদি আর্থিক সমস্যা থেকে থাকে তাহলে জেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করতে বলা হয়েছে। সেই বিষয়গুলোও দেখা হবে।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল কাদির মিয়া বলেন, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় প্রতি পরিবারকে ১০ কেজি চাল, দুই কেজি ডাল, পাঁচ কেজি আলু, মাস্ক, সতর্কতামূলক প্রচারপত্র প্যাকেট করে দেয়া হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক সারওয়ার মোর্শেদ চৌধুরী বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে কেউ খাদ্যাভাবে কষ্ট করতে হবে না। সরকারের সব ধরনের প্রস্ততি রয়েছে। আমাদের কাছে পর্যাপ্ত খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে সদর উপজেলায় ৯০০টি পরিবারসহ পুরো জেলায় ১০ হাজার পরিবারের নিকট খাবার সামগ্রী পৌছে দেয়ার পরিকল্পনা নিয়েছি যা আজ থেকে শুরু করা হলো। পর্যায়ক্রমে পরিস্থিতি ও চাহিদা বিবেচনায় এ সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে। আতঙ্কিত না হয়ে সতর্কতার সঙ্গে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আমাদেরকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *