হা’সপাতালে ক’রোনা রো’গীদের পাশে পরে আছে ৭-৮টি ম’রদেহ।

হা’সপাতালের ও’য়ার্ডে শুয়ে রয়েছেন ক’রোনায় আ’ক্রান্ত রো’গীরা।

রো’গীদের বি’ছানার আশপাশেই ছড়ানো রয়েছে ব্যাগে মোড়া ম’রদেহ।

এই ঘ’টনা ঘ’টেছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের রাজধানী শহর মুম্বাইয়ের মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন পরিচালিত সিয়ন হাসপাতালে।

সে’ই ঘটনার একটি ভিডিও এখন ভাইরাল।

আ’নন্দবাজার প’ত্রিকা ও এনডিটিভির অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মোবাইলে তোলা সেই ঘটনার ভিডিও মুহূর্তেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে।

তা দে’খে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ছাড়াও রাজ্য ও কেন্দ্রীয় স’রকারের ব্যাপক সমালোচনা করছেন নেটিজেনরা।

বু’ধবার ভি’ডিওটি পোস্ট করেন রাজ্য বিজেপি নেতা নীতীশ রাণে।

তি’নি লিখেছেন, ‌‘সিয়ন হাসপাতালের ম’রদেহের পা’শেই ঘুমাচ্ছেন রো’গীরা, এ কেমন প্রশাসন! খুবই লজ্জাজনক ঘটনা।’

ভি’ডিওতে দেখা যাচ্ছে, ওই ওয়ার্ডে চিকিৎসারত রো’গীদের পাশেই রাখা আছে প্লাস্টিকে মোড়া সাত-আটটি ম’রদেহ।

বি’ষয়টি নি’য়ে সিয়ন হাসপাতালের ডিন প্রমোদ ইনগালে বলেন, ‘কোভিড-১৯ রো’গে মৃ’ত রো’গীর আত্মীয়রা ম’রদেহ নিতে রাজি হয়নি।

তা’ই ম’রদেহুগলো সেখানে পড়ে ছিল।

ত’বে আ’মরা সেগুলো অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছি। এই ঘটনার ত’দন্ত করা হবে।

প’রিবার লা’শ নিতে রাজি না তাহলে ম’রদেহগুলো কেন ম’র্গে রাখা হল না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হাসপাতালের ম’র্গে ১৫টি ম’রেদেহ রাখার ব্যবস্থা রয়েছে।

যা’র ১১টি ভর্তি।

স’বগুলো যদি আমরা ভর্তি করে ফেলি, তাহলে ক’রোনা ছাড়া অন্য রো’গে মৃ’তদের ম’রদেহ রাখা নিয়ে সমস্যা হবে।

’প্লা’স্টিকে মোড়া দেহ থেকে ক’রোনা ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে হাসপাতাল প্রশাসন।

এ’কবার প্লা’স্টিকে দেহ মোড়া হয়ে গেলে সেখান থেকে সং’ক্র’মণ ছড়ানোর কোনো সম্ভাবনা নেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে।

ত’বে এ’মন ঘটনায় ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছেন মানুষ।

ভা’রতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে ক’রোনায় আ’ক্রান্ত ও মৃ’ত্যুর সংখ্যা সর্বোচ্চ।

রা’জ্যটিতে এখন পর্যন্ত ক’রোনাভাই’রাসে আ’ক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৭৫৮ জন।

আ’ক্রান্তদের ম’ধ্যে শুধু মুম্বাইয়েই সেই সংখ্যাটা ১০ হাজারের বেশি।

ম’হারাষ্ট্রে ক’রোনায় এখন পর্যন্ত ৬৫১ জন মা’রা গেছে।

Facebook Comments
custom_html_banner1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *