1. ashrafali.sohankg@gmail.com : aasohan : Ashraf Ali Sohan
  2. kgnewssumon@gmail.com : arsumon :
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:-
জাতীয় স্লোগান হিসেবে ‘জয় বাংলা’ ব্যবহারের নির্দেশঃ হাইকোর্ট বন্দুকের নল ঠেকিয়ে ক্ষমতায় থাকা যাবে না- শায়েখে চরমোনাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে অবৈধ ইটভাটা; ১ লক্ষ টাকা জরিমানা নিকলীর সিংপুরে ভায়া পরীক্ষা ও ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত পাকুন্দিয়ায় ১০ হাজার কম্বল নিয়ে শীতার্তদের পাশে ছমির-হালিমা ট্রাস্ট কিশোরগঞ্জ জেলা রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের ক্ষুদ্র প্রয়াস অস্ট্রেলিয়ায় পড়তে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের নিয়ে উন্মুক্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জে পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে ইটভাটাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা কিশোরগঞ্জে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ শসৈনইমেক হাসপাতাল কিশোরগঞ্জে চালু হলো কিডনি ডায়ালাইসিস ইউনিট বিজয় দিবসে কুলিয়ারচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মুক্তিযোদ্ধা কেবিন ও প্যাথলজিক্যাল ল্যাব উদ্বোধন

কিশোরগঞ্জের মডেল মহিনন্দ ইউপি কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলেন এমপি লিপি

রিপোর্টার:
  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৪ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৫৩৭ সংবাদটি দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার,কিশোরগঞ্জঃ কিশোরগঞ্জের মডেল মহিনন্দ ইউপি কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছেন দেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের কন্যা প্রয়াত জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বোন কিশোরগঞ্জ-হোসেনপুর আসনের সংসদ সদস্য ডা: সৈয়দ জাকিয়া নূর লিপি। সোমবার বিকেলে জেলা সদরের মডেল মহিনন্দ ইউনিয়ন পরিষদের প্রাঙ্গণে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ইউপি কমপ্লেক্সের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু, সদর উপজেলার নিবার্হী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদির মিয়া, মহিনন্দ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মনসুর আলী, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম,বৌলাই ইউপি চেয়ারম্যান আওলাদ হোসেনসহ আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতা কমর্ীবৃন্দ ও ইউনিয়নের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
জানা যায়, স্থানীয় সরকার বিভাগের অর্থায়নে নির্মানাধীন ভবনের নির্মাণ ব্যয় হচ্ছে ১ কোটি ২১ লাখ টাকা। পরিষদের নিজস্ব ২৭ শতাংশ ভূমিতে ভবনটি নির্মাণ করা হচ্ছে।
কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম স্বাধীনতার পর থেকেই শুরু হলেও কমপ্লেক্স ভবনের অভাবে কার্যক্রমে ছিল ধীরগতি। প্রথমে ছোট টিনসেড ঘরে চলত পরিষদের কার্যক্রম। পরবর্তীতে একতলা ভবন নির্মিত হলেও অনেক সময় জায়গা সংকুলান না হওয়ায় বিড়ম্বনায় পোহাতে হতো সেবা গ্রহীতারা। এই দুর্দশা থেকে মুক্তি পেতে তৎকালীন এলজিআরডিমন্ত্রী কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের কাছে একটি কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের জন্য বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মনসুর আলী আবেদন জানান। সে প্রেক্ষিতে এগিয়ে আসেন এলাকার সাংসদ ও সাবেক এলজিআরডি মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তার প্রচেষ্টায় দীর্ঘসময় পর হলেও অবশেষে পরিষদের স্থায়ী কমপ্লেক্সটি নির্মিত হওয়ায় এলাকার সচেতন মহলের মধ্যে দেখা দিয়েছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা।

Facebook Comments Box

খবরটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরও খবর